এরকম বৃষ্টির ওয়েদারে একঘেয়ে খিচুড়ি না খেয়ে বাড়িতেই বানিয়ে নিন অন্য স্বাদের চিংড়ি মাছের খিচুড়ি

কিভাবে চিংড়ি মাছের খিচুড়ি তৈরি হয়ে যাবে খুব সহজে।

১০ দিক ২৪ঃ এই বৃষ্টিতে বাড়িতে বসে থেকে কি খাব চিন্তা করতে করতে সবার প্রথমে মাথায় আসে খিচুড়ির কথা। এই দারুণ ওয়েদারে খিচুড়ি আর পাপড় ভাজা হলে যেন এই ঠান্ডা ঠান্ডা আমেজটা জমে যায়। তবে এই খিচুড়ির সাথে যদি চিংড়ি মাছ থাকে তাহলে তো আলাদাই ব্যাপার। তাই আজ চিংড়ি মাছের খিচুড়ির রেসিপিটা একবার দেখে নেওয়া যাক।এখানে পরিমাণটা চারজনের খাবার জন্য দিয়ে দিলাম।

উপকরণ:-চাল(৩ কাপ), মুগ ডাল( ৩ কাপ), ২টেবিল চামচ গোটা জিরে, ৪ টি তেজপাতা,৪ টে লঙ্কা।আর সরষের তেল নিয়ে নিতে হবে। এছাড়া আদা জিরে বাটা ২ চা চামচ,  গোটা শুকনো লঙ্কা ৪ টি, স্বাদ অনুযায়ী চিনি, নুন।  পরিমান মতো হলুদ পরিমান মতো ঘি নিয়ে নিতে হবে। আড়াইশো চিংড়ি মাছ, পিয়াজ মাঝারি সাইজের ৪ টে নিয়ে নিতে হবে।

এবার দেখে নেয়া যাক এই সব উপাদান গুলি নিয়ে কিভাবে চিংড়ি মাছের খিচুড়ি তৈরি হয়ে যাবে খুব সহজে।

পদ্ধতি:- প্রথমেই ফোরণ দিয়ে নিতে হবে। একটি বড় পাত্রে প্রথমে সর্ষের তেল দিয়ে তেল গরম হয়ে গেলে তাতে জিরে তেজপাতা ও শুকনো লঙ্কা ফোঁড়ন দিয়ে নিতে হবে। তারপরে ধুয়ে রাখা চাল ও ডাল ভালো করে ফোড়ন এর মধ্যে দিয়ে হালকা করে ভেজে নিতে হবে। এবং একই সঙ্গে এর মধ্যে আদা ও জিরে বাটার পেস্ট টি দিয়ে নাড়িয়ে নিতে হবে। এরপর এর মধ্যে পরিমাণমতো জল দিয়ে নিতে হবে  মোটামুটি ৪ গ্লাস। অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে যে চাল দেওয়ার পরে তার থেকে তিন আঙ্গুল উপরে যেন জল থাকে। এরপরে এর মধ্যে হলুদ  নুন চিনি  পরিমাণমতো দিয়ে নিতে হবে ।এরপরে প্রায় কুড়ি মিনিট চাল ডাল টিকে  ফুটতে দিয়ে সেদ্ধ করে নিতে হবে।

এরপর চিংড়ি মাছ গুলি কে  খোসা ছাড়িয়ে নিয়ে  তাতে নুন হলুদ দিয়ে মেখে নিতে হবে।তারপর অন্য একটি পাত্রে সামান্য সরষের তেল গরম করে নিয়ে পিয়াজ গুলিকে ভাল করে ভেজে নিতে হবে পেঁয়াজ ভাজা হয়ে গেলে তার মধ্যে চিংড়ি মাছ গুলো দিয়ে হালকা করে ভেজে নিতে হবে। সব উপকরণ গুলি ভাজা হয়ে গেলে সেগুলি তুলে নিতে হবে অন্য একটি পাত্রে।

এরপর খিচুড়ি চাল ডাল সেদ্ধ হয়ে গেলে তারমধ্যে চিংড়ি মাছ ও পেঁয়াজ ভাজা টা দিয়ে দিতে হবে। এবং চারটি কাঁচালঙ্কা তার মধ্যে দিয়ে ভালো করে নেড়ে চেড়ে নিতে হবে। আরো ৫ মিনিট খিচুড়ি টাকে গ্যাসের মধ্যে রেখে দিতে হবে। এরপরে খিচুড়িটা নামানোর আগে তার মধ্যে ঘি দিয়ে সেটাকে নেড়েচেড়ে নামিয়ে নিতে হবে।

এভাবেই তৈরি হয়ে যাবে আমাদের সুস্বাদু চিংড়ি মাছের খিচুড়ি। অবশেষে এই চিংড়ি মাছের খিচুড়ি তৈরি হয়ে গেলে তা পরিবেশন করে নিতে হবে এবং পরিবেশন করার পরে উপরে অল্প একটু ঘি দিয়ে দিতে হবে।