কালোটাকা নিয়ে প্রশ্নের মুখে মোদী সরকার। কোনো রকম জবাবদিহিতে নারাজপ্রধাণমন্ত্রী।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ আবার কালোটাকা নিয়ে প্রশ্নের মুখে মোদী সরকার। ২০১৪সালে দুর্নীতি ইস্যু ও কালোটাকা ফিরিয়ে দেওয়া হবে এই মূল দাবী নিয়েই সরকার গঠন করেছিল বিজেপি। কিন্তু বর্তমানে সেই কালোটাকা নিয়েই আর কোনো রকম জবাবদিহিতে নারাজ প্রধাণমন্ত্রী।

প্রশ্ন করা হয়েছিল বিগো পাঁচ বছরে কতটা কালোটাকা ফেরত এলো দেশে। কিন্তু নিরাপত্তা ও তদন্তের ইস্যু তুলে সে প্রশ্নের জবাব দিতে অস্বীকার করছে কেন্দ্র। তারা জানিয়েছে কালোটাকা নিয়ে তদন্তের জন্য যে তদন্তদল বা সিট গঠন হয়েছে তাদের কাজ ব্যহত হতে পারে যদি এইসব তথ্য প্রকাশ্যে আসে। এবং দোষীরাও তাতে সতর্ক হয়ে যেতে পারে।



যদিও কালোটাকা দেশে ফেরানোর নামে একের পর এক ভ্রান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে মোদী সরকার। কালোটাকা বাজেয়াপ্ত করতে নোটবন্দী করেছিলেন মোদী। কিন্তু তাতে জনগণের হয়রানি ছাড়া আর কিছুই হয়নি। রিজার্ভ ব্যাঙ্কের হিসাব অনুসারে সে সময় বাজারে যে পরিমাণ টাকা ছিল প্রায় সবটাই জমা পড়ে যায়। পূর্ব প্রতিশ্রুতি মত সবার অ্যাকাউন্টে ১৫লক্ষ টাকাও জমা পড়েনি।

এরমধ্যে সঞ্জীব চতুর্বেদী নামক এক আমলা তথ্য জানার অধিকার আইনে বিদেশ থেকে কত টাকা দেশে ফিরেছে জানতে চাইলে তাকে এই উত্তর দেয় কেন্দ্র। সুপ্রীম কোর্ট বা কেন্দ্রীয় তথ্য কমিশন এই সংক্রান্ত তথ্য জানতে চাইলেও একই উত্তর দিয়েছে প্রধাণমন্ত্রীর দফতর। তবে কী এটা নিজেদের ব্যর্থতা এড়িয়ে যাবার চেষ্টা? প্রশ্ন কিন্তু উঠছে।