শবরীমালা মন্দিরে ঢুকে ইতিহাস গড়া সাহসী কনক। আক্রান্ত নিজের শ্বশুরবাড়িতে।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ কিছু দিন আগেই, শবরীমালা মন্দিরে ঢুকে ইতিহাস গড়েছিলেন দুজন সাহসী নারী। এবার তাদের মধ্যেই এক জন আক্রান্ত হলেন নিজের শ্বশুরবাড়িতে। আক্রান্ত মহিলার নাম কনক দুর্গা।

জানা যাচ্ছে, শবরীমালা মন্দিরে ঢোকার পর থেকে আত্মগোপনে ছিলেন তিনি। তার পর ৩৯ বছরের ওই নারী শ্বশুরবাড়িতে ফিরে আসেন। তাঁর শাশুড়ি তাঁকে লাঠিপেটা করে মাথা ফাটিয়ে দেন। তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।



প্রসঙ্গত, ১০ থেকে ৫০ বছর বয়সী নারীদের শবরীমালা মন্দিরে প্রবেশ করতে না দেওয়ার যে শতাব্দী-প্রাচীন প্রথা রয়েছে, সেই প্রথা ভেঙ্গে মন্দিরে প্রবেশ করেন কনক দুর্গা। তখন থেকেই তাঁকে মেনে নেন নি শ্বশুরবাড়ির লোকেরা। কনক দুর্গার স্বামী কিষান উন্নিকে থানায় ডেকে জিজ্ঞাসা করা হয়। কিন্তু কনক দুর্গাকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিতে রাজি হননি তারা। কনক দুর্গা থানায় অভিযোগও দায়ের করেছেন। নিজের অধিকার ফিরে পেতে আদালতের দ্বারস্থ হচ্ছেন তিনি।