বুদ্ধ থেকে মমতা, কখন ও কারুর সঙ্গেই তিক্ততা হয়নি অটল বিহারী বাজপেয়ীর।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ দেশের অন্যতম প্রাক্তন প্রধাণমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীর অবস্থা সংকটজনক। এনডিএ সরকারের ভারপ্রাপ্ত প্রধাণমন্ত্রী ছিলেন তিনি। এসেছিলেন বাংলায়ও। তবে তার কারণ অবশ্য ছিল অন্যরকম।

অটল বিহারী বাজপেয়ী আসলে এসেছিলেন বাংলার বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী ও তৎকালীন বিরোধী দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ী। সেসময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এনডিএ সরকারের গুরুত্বপূর্ণ শরিক ও রেলমন্ত্রীও ছিলেন। তবে সরকারের সাথে খুব একটা সুসম্পর্ক তাঁর ছিলনা। রাজ্যে চারটি রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাকে বেসরকারীকরণের তীব্র বিরোধী ছিলেন তিনি। বামদলের অপশাষণের কথা তুলে মমতা রাজ্যে বারবার রাষ্ট্রপতি শাষণ চাইলেও তাতে কান দেয়নি বাজপেয়ী সরকার। কিন্তু এনডিএ জোটে মমতার প্রয়োজনও ছিল।



তাই মমতার সাথে রাজনৈতিক সম্পর্কের উন্নতির জন্যই তাঁর কালিঘাটের বাড়িতে যান অটল বিহারী বাজপেয়ী। পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মা গায়ত্রী দেবীকে। মমতাও ধুতি-পাঞ্জাবী, মিষ্টি ও রবীন্দ্রসঙ্গীতের ক্যাসেট দিয়ে বরণ করে নেন বাজপেয়ীজি কে।
এই সফরে কোনো রাজনৈতিক আলোচনা হয়নি। বাজপেয়ী বলেছিলেন এটি শুধুই সৌজন্য সাক্ষাত। কিন্তু আসলে যে এটি সম্পুর্ণ রাজনৈতিক কারণে হয়েছিল তা নিয়ে নিঃসন্দেহ ছিল সকলেই।

যদিও অটল বিহারী বাজপেয়ীর বাংলায় আসার প্রধাণ কারণ ছিল বিজেপির প্রতিষ্ঠাতা শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের জন্মশতবর্ষ উদযাপনের সূচনা। সেখানে মমতা উপস্থিত থাকলেও, ছিলেননা তৎকালীন বামফ্রন্ট সরকারের কোনো মন্ত্রীই। মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টচার্য, বাজপেয়ী কে এয়ারপোর্টে স্বাগত জানাতে গেলেও উক্ত অনুষ্ঠানে যাননি। জানিয়েছিলেন নীতিগত কারণেই তিনি উপস্থিত থাকতে পারবেননা।

 

 

 

 

আমাদের খবর দেখতে যুক্ত থাকুন আমাদের ফেসবুক পেজে, ক্লিক করুন এখানে
আমাদের খবর Whatsapp এ পেতে, যুক্ত হোন আমাদের Whatsapp গ্রুপে, ক্লিক করুন এখানে