রাহুলের সভায় অনুপস্থিত অধীর। তবে কি বিজেপিতে যোগদান করতে চলেছেন? বাড়লজল্পনা।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ রাজ্যে একের পর এক দলগুলি থেকে বিজেপিতে যোগদানের ঘটনা সামনে আসছে। তবে এবার কি সেই তালিকায় নাম লেখাতে চলেছেন কংগ্রেসের হেভিওয়েট নেতা ও বাংলার প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী? উঠছে প্রশ্ন।

কিছুদিন আগেই মুর্শিদাবাদ কংগ্রেস নেতা ও অধীর ঘনিষ্ঠ হুমায়ুন কবীর বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। শুধু তাই নয়, প্রকাশ্য সাংবাদিক বৈঠক থেকে অধীর চৌধুরীকে বিজেপিতে যোগদানের আহ্বান ও জানান তিনি। বিজেপির শীর্ষনেতৃত্বরাও তাঁকে বিজেপিতে যোগ দিতে বলেছেন বারবার। যদিও অধীর এসব ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ করেছেন ও তাঁর বিজেপিতে যাবার খবরের প্রবল বিরোধীতাও করেছেন তিনি। এমনকী তাঁর বিজেপি গমন নিয়ে খবর করায় এক সংবাদমাধ্যম কে আইনি নোটিশ ও পাঠান অধীর চৌধুরী।

কিন্তু বিতর্ক এ নিয়ে বেড়েই চলেছে। শনিবার কংগ্রেস শাষিত রাজ্যগুলির মুখ্যমন্ত্রী, বিরোধী দলনেতা ও প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতিদের নিয়ে দিল্লীতে একটি বৈঠক ডাকেন রাহুল গান্ধী। সেই বৈঠক অত্যন্ত জরুরী হলেও তাতে যোগ দেননি অধীর।
এক্ষেত্রে জানা গেছে বিজেপি বিরোধী লড়াই নিয়ে নাকী কোনো উৎসাহই নেই অধীরের। উল্টে তৃণমূলের সাথে দলের ঘনিষ্ঠতা বাড়াতে বেজায় ক্ষুব্ধ তিনি। কারণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে তাঁর সাপে-নেউলে সম্পর্কের কথা সর্বজনবিদিত।

যদিও অধীর চৌধুরী জানিয়েছেন একটি মামলার কাজ পড়ে যাওয়াতে শনিবার তিনি দিল্লী যেতে পারেননি। কিন্তু এতেও থামছে না তাঁর বিজেপিযোগের জল্পনা।