কেরলের পাশে সোশ্যাল মিডিয়ায় কুরুচিকর মন্তব্যের শিকার হওয়া সেই 'মাছওয়ালি'।শিক্ষা নিক সমাজ।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ মদ্যপ বাবা, পারিবারিক অবস্থা খারাপ তবু ও হার মানেনি মেয়ে টি। লড়ে গেছে পড়ে গেছে। মেয়েটার নাম হানান হামিদ। কেরালার এই তরুণী হানান হামিদ, পড়াশুনার খরচ চালাতে, স্টেশনে মাছ বিক্রি করেন। সংবাদ মাধ্যমে হামিদ জানান, লোকাল বাসে ৬০ কিলোমিটার দূরে তার কলেজ। সারা দিন ক্লাস করে ফিরে বাজার কিংবা রেল স্টেশনে শুরু হয় মাছ বিক্রি। রাতে বাড়ি ফিরে আবার ভোর ৩টায় উঠে মাছ কিনতে যাওয়া। এটাই হানানের প্রতিদিনের রুটিন।

এই নিয়ে কিছু দিন আগেই সোশ্যাল মিডিয়াতে কুরুচিকর মন্তব্যের শিকার হতে হয় তাঁকে। এমন কি মাছ বিক্রির সময় এক বখাটে উত্যক্ত করে হানানকে। পরে পুলিশ দ্রুত ব্যবস্থা নিয়ে ওই বখাটেকে গ্রেপ্তারও করে। পরবর্তী সময় কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন মেয়েটির সাথে দেখা করেন, সাহস যোগান। এবার সেই ছোট বিত্ত নিয়ে মহৎ চিত্তের পরিচয় দিলেন 'মাছ ওয়ালি'।

করলে এই মুহূর্তে বন্যা পরিস্থিতি, ১০০ বছরের মধ্যে সব থেকে বড় বিপর্যয়ের মধ্যে দিয়ে জেতে হচ্ছে কেরল কে। আর এই সময় কেরলের সাহায্যে এগিয়ে এল সেই কুরুচির মন্তব্যের শিকার হওয়া, 'মাছ ওয়ালি' ই। হানান নিজের সঞ্চিত অর্থ থেকে ১.৫ লক্ষ টাকা মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে তুলে দিলেন। আর এই নিয়ে অনেক প্রশংসা কুড়িয়েছেন ছোট মেয়েটি। নিজের পরিস্থিতির মধ্যে থেকে ও যেভাবে মেয়েটি এগিয়ে এসেছেন, তাতে অনেকেই তাঁকে দেখে সমাজ কে শিক্ষা নিতে বলেছেন।