চিন নেপালের বন্ধুত্বে, ভারতের বাড়ছে চাপ। এবার নেপালে চলতে চলেছে চিনা ট্রেন।

চিন নেপাল এর মৌ স্বাক্ষরের মধ্যমে এবার নেপালে চলতে চলেছে চিনা ট্রেন। কাঠমান্ডু ও বেজিংয়ের মধ্যে মোট ২৪টি মৌ স্বাক্ষর হয়৷ তারমধ্যে সর্বাধিক আলোচিত হল তিব্বত থেকে নেপাল পর্যন্ত রেলপথ চালু৷ চিনের তরফে নেপালের উন্নয়নের জন্য ১৬ হাজার কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজ দেওয়া হবে৷ আর এর মাঝে চিন নেপাল এর মৌ স্বাক্ষরে কপালে ভাঁজ ফেলেছে মোদী সরকারের।

একটি নেপালি সংবাদপত্রে লেখা হয়েছে, সময় এসেছে এবার ভারতের প্রভাব থেকে বেরিয়ে আসার৷ আর তাতেই বাড়ছে আশঙ্কা। তবে কি দিল্লির সঙ্গে দুরত্ব বাড়িয়ে চিনের সঙ্গে হাত মেলাতে চলেছে নেপাল?

তবে সে জল্পনা উরিয়ে দিয়েছে নেপাল সরকার। চিনের সরকারি সংবাদপত্র ‘গ্লোবাল টাইমস’-এর রিপোর্টে নেপালি কমিউনিস্ট প্রধানমন্ত্রীর জানান চিন সফরে ভারতের হতাশ হওয়ার কোনও কারণ নেই৷ এতে নেপালের উপর দিল্লির প্রভাব কমবে না৷ এবং ভারত-চিন-নেপালের মধ্যে যাতে ত্রিপাক্ষিক সম্পর্ক গড়ে তোলা যায় তার জন্য ভারতের কাছে আহ্বান জানিয়েছে নেপাল।