আগামী কাল থেকেই গাড়ি চালাবে সৌদি নারীরা। অবশেষে মিললো অনুমতি।

১০দিক২৪ঃ গণতন্ত্রের দাবিতে লড়াই হয় সব দেশেই। কথাও শিক্ষা আবার কথাও ভালো ভাবে বাঁচার জন্য। তবে সৌদি নারী দের দীর্ঘ দিন লড়াই করতে হল গাড়ি চালাবার অনুমতির জন্য। হ্যাঁ, দেশটিতে নারীদের গাড়ি চালানোর অনুমতি ছিল না এত দিন, ভারতের মত দেশে যা ভাবা একে বারেই কঠিন।

বিশ্বে সৌদি আরবই একমাত্র দেশ, যেখানে নারীদের গাড়ি চালানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা চলে আসছে। এখন এই নিষেধাজ্ঞার অবসান ঘটতে যাচ্ছে। কয়েক দশক ধরে সৌদি আরবে নারীদের গাড়ি চালানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা বলবৎ রয়েছে। তরুণ মোহাম্মদ বিন সালমান যুবরাজ হয়ে তার দেশকে আধুনিক করতে নানামুখী সংস্কার-কার্যক্রম হাতে নেন। এই সংস্কার কার্যক্রমের মধ্যে নারীদের গাড়ি চালানোর ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার বিষয়টিও রয়েছে বলে কর্তৃপক্ষের ভাষ্য।

দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর সম্ভাব্য হাজারো সৌদি নারী চালকেরা রবিবার গাড়ি চালাতে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে। সৌদিতে নারীদের গাড়ি চালানোর অনুমতি দেয়ার পদক্ষেপটি দেশটিতে সামাজিক গতিশীলতা আনার ক্ষেত্রে নতুন যুগের সূচনা করতে পারে বলে অনেক পর্যবেক্ষক মন্তব্য করেছেন। আরব লেখক ও বিশ্লেষক হানা আর-খামরি বলেন, ‘এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। নারীর মুক্ত গতিময়তার জন্য এটা অপরিহার্য।’ সৌদিপন্থী চিন্তনপ্রতিষ্ঠান অ্যারাবিয়া ফাউন্ডেশনের নাজাহ আল-ওতাইবি বলেন, এটা একটা স্বস্তি। সৌদি নারীরা সুবিচার পাওয়ার বিষয়টি অনুভব করছেন।’ তবে গাড়ি চালাবার সুযোগ পেয়ে অনেক টাই খুশি দেশের মহিলারা।