চুলের সৌন্দর্য্যে ফুলের সাজ।

প্রচন্ড গরম পড়ে গিয়েছে। কিন্তু তাই বলে তো আর পার্টিতে যাওয়া, নিমন্ত্রণ বা বিয়ে বাড়ীতে যাওয়া বন্ধ নেই। এই গরমে বেশী ভারী সাজতেও ভালো লাগেনা আবার সাজটা একটু গর্জাস না হলে কেমন সাদামাটা লাগে। তাই লুকস একদম চেঞ্জ করতে চুলের সাজে ফুল ব্যবহার করে দেখুন না। ফুলের মিষ্টি সুগন্ধ যেমন আপনাকে স্নিগ্ধতা দেবে তেমনই আপনার সাজটাও করে তুলবে গর্জাস।

আসুন দেখেনি কী ভাবে সাজাবেন চুলটা তার তিনটি পদ্ধতি

১. চুল ভালো করে আঁচড়ে নিন। এবার চুলটা সাইড পার্ট করে নিন। মাথার তালুর ঠিক মাঝখান থেকে কিছু চুল নিয়ে ব্যাককোম্ব করে পাফ করে ক্লীপ দিয়ে আটকে নিন। এবার পুরো চুল টা সাইড পার্টের যেদিকে কম চুল আছে সেদিকে এনে আলগা খোঁপা করে নিন। কিছু খুচরো চুল কানের পাশে আর কপালে বার করে রাখবেন। এবার খোঁপার চারপাশে জড়িয়ে দিন জুঁইফুলের মালা। বা পোশাকের রঙের সাথে মানানসই চন্দ্রমল্লিকা অথবা জারবেরা ফুল ও লাগাতে পারেন।

 


২. যদি একটু রেট্রো লুক চান তবে এই স্টাইলটি করতে পারেন। এটি বড়ো চুলে মানানসই।
চুল মিডল পার্ট করে নিন। তালুর মাঝথেকে চুল ব্যাককোম্ব করে পাফ করুন। ক্লীপ দিয়ে ভালো করে আটকে নিন। এবার বাকী চুলে হালকা ভাবে বিনুনি করে নিন। যেখান থেকে বিনুনি শুরু হয়েছে সেখানে চন্দ্রমল্লিকা বা সুর্যমুখী ফুল লাগাতে পারেন। বা সমগ্র বিনুনিটিতে ছোট্টো ছোট্টো সাদা গোলাপ লাগাতে পারেন।

৩. সমগ্র চুলটি আঁচড়ান। সামনের অংশ পাফ করে নিন। এবার পুরো চুল দিয়ে আলগা হাত খোঁপা করে কাঁটা দিয়ে আটকে নিন। সমগ্র খোঁপাটি লাল গোলাপ দিয়ে ঘিরে দিন। অথবা জুঁইফুলের মালায় পুরো খোঁপাটি ঢেকে দিতে পারেন। সেটিও খুব সুন্দর লাগবে।

এছাড়া আপনি যদি চুল খুলে রাখতে চান তবে চুল ভালো করে আঁচড়ে কানের পাশ দিয়ে চন্দ্রমল্লিকা বা জারবেরা ফুল লাগিয়ে নিলেও সুন্দর লাগে।