বামেদের প্রচার। দিদিকে বলেছি এর পাল্টা সোশ্যাল মিডিয়ায় বামেদের প্রচার।

১০ দিক ২৪ ব্যুরো :পথে বামেরা। দিদিকেই বলছি।  এই নামেই পাল্টা প্রচারে বামেরা।একটিও আসন  এ  বঙ্গে না পেয়েও তৃণমূলের দিদিকে বলোর সঙ্গে টক্কর দিতে পাল্টা প্রশ্ন তৈরি করেছে আলিমুদ্দিন। লড়াই শুরু করেছে কঠোর ভাবে। এ রাজ্যের  সিপিএম  নেতাদের দাবি, আট বছরে রাজ্যের মানুষ মুখ্যমন্ত্রীকে যেসব প্রশ্ন করতে পারেননি, দিদিকেই বলছির মাধ্যমে তাঁরা সেগুলিই তুলে ধরতে চান।

 মানুষের অভাব-অভিযোগ এক ফোনে জানানো যাচ্ছে মুখ্যমন্ত্রীকে। আর তাকেই অস্ত্র করে মুখ্যমন্ত্রীকে বিঁধতে পাল্টা ময়দানে সিপিএম। 

চ্যালেঞ্জ দিয়ে বামেরা যে সব প্রশ্ন তুলছে তা হলো

১ নং)  ২০১১-এ সরকারে আসার প্রথম ২০০দিনের মধ্যে কী কী করা হবে তার ভিশন ডকুমেন্ট তৈরি হয়।সেখানে বলা হয়, রাজ্যজুড়ে 'শিল্পনগরী শৃঙ্খল' গড়ে তোলা হবে, বন্ধ রাষ্ট্রায়ত্ত্ব কারখানা পুনরায় চালু হবে। ৮ বছরে ফল উল্টো। ৪৬টি রাষ্ট্রায়ত্ত্ব সংস্থা বন্ধ। কেন?

২ নং) ২০১১সালে সরকারের ঋণভারের পরিমান ছিল ১ লক্ষ ৯২ হাজার টাকা কোটি টাকা। ২০১৯-২০-র মাঝামাঝিতে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩ লক্ষ ৯৫ হাজার কোটি টাকা। কীভাবে?কেন?

৩ নং) বছরে ২ লক্ষ কর্মসংস্থানের কী হলো?SSC থেকে টেট লিস্টে নাম উঠছে মন্ত্রী কন্যা থেকে নেতার আত্মীয়দের। কাজ চাই, কাজ কোথায় বলুন?

৪ নং) আদালত থেকে রাজ্যপাল, সবার গলাতেই আইনশৃঙ্খলা নিয়ে এমন উদ্বেগ কেন?কেন পুলিসকে টেবিলের তলায় লুকোতে হয়?কেন এরাজ্যে নির্বাচন ও নির্বাচন পরবর্তী সংঘর্ষ সবচেয়ে বেশি?কেন ৮বছরে ২১৮জন বাম কর্মীকে খুন হতে হয়?

৬ নং) ২১ জুলাই আপনি গণতন্ত্র ফেরানোর ডাক দিয়েছেন, পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্র ফেরানো দায়িত্ব কার?২০১৮ সালের পঞ্চায়েত ভোটে এত হিংসা হল কেন?কেন বামেদের মনোনয়ন জমা দিতে বাধা?

বামেদের এই প্রচার খুব কম তাড়াতাড়ি ছড়িয়ে পড়েছে  সর্বত। প্রায় দলের প্রত্যেক কর্মীকে হোয়াট্‍অ্যাপের মাধ্যমে এই সব প্রশ্ন ছড়িয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে আলিমুদ্দিন। 

সোশ্যাল মিডিয়ায়  প্রচার বামেদের কতো লাভ হয় সেটাই দেখার। হারানো জমি পুনরুদ্ধারে দিদিকেই বলছি ক্যাম্পেন বামেদের কতটা লাভ হয় সেটাই হচ্ছে এখন দেখার ব্যাপার।