মেয়র প্রেমে মত্ত, কিন্তু বামেদের তৈরি প্রকল্প ই বাঁচাতে পারত বাগরি মার্কেট কে।জানুন কিভাবে?

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ রাজ্যের মধ্যে দাউ দাউ করে জ্বলছে একটা আস্ত বাজার। শনিবার মধ্যরাতে আড়াইটা নাগাদ আগুন লাগে। দমকল কর্মীরা জীবনের বাজি রেখে লড়াই করছেন আগুন নেভাতে। সরকার মুখে বললেও কাজে সেভাবে দেখা মেলেনি। মেয়র শোভন বাবু প্রেম নিয়ে দীর্ঘ কয়েক মাস ধরে রয়েছেন সংবাদ শিরোনামে, কিন্তু মানুষের পাশে সেভাবে না পাওয়ার অভিযোগ জানাচ্ছে সাধারণ মানুষ।



কিন্তু এর মধ্যে ও আশার আলো ছিল, কিন্তু কেবল মাত্র না জানার দরুন বাঁচানো গেল না ১০০ কোটি অসুধ সহ বিভিন্ন সামগ্রী। ১৯৮৫ সালে বামেদের নেতৃত্বে বাগরি মার্কেটের পিছনে আর্মেনিয়ান স্ট্রিটে একটি জলাধার তৈরি করা হয়। তখন মেয়র ছিলেন কমল বসু। বড়বাজার এলাকার অধিকাংশ বাড়িই বহু পুরনো। ফলে ভিত দুর্বল হয়ে যাওয়ার আশঙ্কায় বাড়ির নিচে জলাধার না করে রাস্তার নিচে জলাধার করার সিদ্ধান্ত নেয় পুরসভা। এই বিষয়ে কিছু জানত ই না পুরসভা।

বড়বাজারে অগ্নিনির্বাপনের ব্যবস্থা জন্যই এই জলাধার টি তৈরি করা হয়েছিল। মঙ্গলবার সকালে বড়বাজার এলাকায় আবিষ্কার হয় এই বিশাল ভূগর্ভস্থ জলাধার টি। জানা যাচ্ছে, এই বিশাল ভূগর্ভস্থ জলাধারে রয়েছে গঙ্গার জল ভরার ব্যবস্থা। তবে সরকার না জানার দরুন এভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে হল বাজারটিকে।  বামেদের তৈরি প্রকল্প ই বাঁচাতে পারত, বাগরি কে, কেবম মাত্র সরকারের গাফিলতির জন্য তা সম্ভব হল না বলে অভিযোগ তুলেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।