"আমি কাটমানি নেবো না।" - অঙ্গীকার পত্রে সাক্ষর করলেন কাউন্সিলররা।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ কাটমানি নেবার প্রবণতা এতটাই বেড়েছে যে এবার মুচলেকা দিতে হল পুরসভার কাউন্সিলারদের। সরকারি প্রকল্পে কাটমানি নেবার প্রবণতা বাড়ছিল দীর্ঘদিন ধরেই। মুখ্যমন্ত্রীর বারবার সতর্কীকরণের পরেও কমেনি এই অভিযোগে অভিযুক্তদের দৌরাত্ম। তাই এবার 'হাউজিং ফর অল' প্রকল্পে গরীবদের জন্য বরাদ্দ টাকার যাতে কোনো অপব্যবহার না হয়, তা নিশ্চিত করতে এই অভিনব পদক্ষেপ নিল গুসকরা পুরসভা।




জানা গেছে মঙ্গল বার জরুরী ভিত্তিতে মিটিং ডেকে বিধায়কদের এই মুচলেকাপত্র দেওয়া হয়। যাতে সই করে সহমতি জানান বিধায়করা। এতে লেখাছিল "কাউন্সিলর হিসাবে অঙ্গীকার করছি যে ‘হাউজিং ফর অল’ প্রকল্পে গরিব মানুষদের জন্য ওয়ার্ডে যে গৃহ নির্মাণ হইবে সেই কাজে কোনও গরিব মানুষের কাছে কোনওরূপ অর্থ দাবি করিব না। যদি কোনওভাবে চুক্তিভঙ্গের সমাচার পৌঁছায় তাহলে সঙ্গে সঙ্গে কাজ বন্ধ করিয়া দেবে৷" পুরসভা চেয়ারম্যান বুধেন্দু রায় জানিয়েছেন কাজে স্বচ্ছতা আনার জন্যই এটা করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য ২০১৭–১৮ সালে গুসকরা পুরসভায় ৯৮৯ জনের জন্য অনুদান বরাদ্দ হয়েছে। বাড়ী প্রতি ৩ লাখ ৪৩ হাজার টাকা করে সরকারি অনুদান দেওয়া হবে বলে জানা গেছে। তার সঙ্গে উপভোক্তাকে আর মাত্র ২৫ হাজার দিতে হবে। বাড়ী তৈরির পরের কিছু কাজের জন্য পুরসভা দেবে ১৮ হাজার টাকা। এদিন গুসকরা পুরসভা বৈঠক উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের ৭ জন ও বামেদের ৫ জন কাউন্সিলর৷