স্বামীর মৃত্যুর বিচার চাই। এবার থানায় অভিযোগ দায়ের নবান্নের সামনে আত্মঘাতীযুবকের স্ত্রীর।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ শুক্রবার দিন বিকেল পাঁচটা নাগাদ নবান্নের কাছে নিজের গায়ে কেরোসিন ঢেলে গায়ে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যা চেষ্টা করেন এক ব্যক্তি। ব্যক্তির নাম সঞ্জয় সাহা, হাওড়ার গোলাবাড়ি থানার বাসিন্দা তিনি।

প্রোমোটারদের সঙ্গে কারখানা তৈরি কে কেন্দ্র করে তার বচসা হয়। এলাকায় দূষণ ছড়িয়ে পড়বে এই আশঙ্কাতেই প্রতিবাদ জানান তিনি। এর জন্য প্রোমোটারদের লোকেরা সোমবার তাকে ব্যাপক মারধর করে। এই অপমান সহ্য করতে না পেরে মঙ্গলবার সকাল থেকেই নিখোঁজ হয়ে যান তিনি। এবং সেই ক্ষোভ থেকেই তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে নবান্নের সামনে গায়ে কেরোসিন ঢেলে গায়ে আগুন লাগিয়ে প্রতিবাদ করেন তিনি।



প্রথমে নবান্নের কাছে একটি বেসরকারি হাসপাতালে পাঠানো হয় তাঁকে ৷ এরপর সঞ্জয়ের শারীরিক পরিস্থিতির ক্রমশ অবনতি ঘটতে থাকলে এসএসকেএম হাসপাতালে পাঠানো হয় তাঁকে ৷ পরে মৃত্যু হয় তাঁর।

এর আগেই, সঞ্জয় বাবুর স্ত্রী শর্মিষ্ঠা দেবী জানান "প্রতিবাদ করে কোন রকম ফল না পাওয়ায় মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন তিনি।" গত রবিবার গোলাবাড়ি থানায় গিয়ে আত্মহত্যায় প্ররোচনাকারী দের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। শাসকদলের হাতে হেনস্তা হওয়ার ঘটনা প্রকাশ্যে যতবেশি করে প্রকাশ্যে আসায় পরিবারের ওপর চাপ বাড়ছে বলে জানিয়েছেন তাঁর স্ত্রী।