তৃণমূলের বিধায়ক কে কলার ধরে মার জনতার। কোন মতে প্রান বাঁচিয়ে পালালেন বিধায়ক।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ গত বিধানসভা তে সারা রাজ্য জুড়ে ব্যাপক ভাবে জয়ী হয়েছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। কিন্তু ২ বছর পেরোতে না পেরোতেই উলট পুরাণ। এলাকার তৃণমূল বিধায়ক কে জামার কলার ধরে টেনে নামিয়ে কিল চড়, এমনই ঘটনার সাক্ষী থাকল ঘাটাল।

বিধায়কের নাম শংকর দলুই। দীর্ঘ দিন ধরে একাধিক দুর্নীতিতে নাম জড়িয়েছে তার, এবার তার ই হিসেব বুঝে নিল এলাকার মানুষ। চাকরি দেওয়ার নামে টাকা তোলা, একশো দিনের কাজ দুর্নীতি, গৃহনির্মাণের টাকা আত্ম-স্বাদ, একাধিক অভিযোগে অভিযুক্ত তৃণমূলের এই বিধায়ক।



জানা যাচ্ছে, এলাকায় পানীয় জলের তীব্র সমস্যার কথা মানুষ বিধায়কের সামনে তুলে ধরেন। কিন্তু বিধায়ক উল্টে তৃণমূলের বুথ কমিটির কাছে টাকা নেবার জন্য বলেন, কিন্তু বুধ কমিটির সভাপতির গ্রামবাসী দের জানান, যা টাকা আছে সব বিধায়কের কাছে। মানুষ সোমবার বিধায়কের বাড়ি গিয়ে এই বিষয়ে প্রশ্ন করলে, বিধায়কের শ্যালক সন্তোষ দিয়াশী গ্রামবাসী দের জোর করে বের করে দেন। আর এর পরেই ক্ষেপে যায় জনতা।



বিধায়ক ঝাড়গ্রামে মুখ্যমন্ত্রীর সভায় যাবার পথে গ্রামবাসীরা তার রাস্তা ঘিরে ধরে প্রকাশ্যে তাঁকে জামার কলার ধরে টেনে নামিয়ে কিল চড় মারতে থাকেন। কোন মতে নিরাপত্তারক্ষী দের সহায়তায় প্রান নিয়ে পালিয়ে বাঁচেন বিধায়ক। এই ঘটনা স্বাভাবিক ভাবে তৃণমূলের ভাবমূর্তি কে প্রশ্ন চিহ্নের সামনে তুলে ধরেছে।