ধর্ষণের অভিযোগে ফের বিতর্কে রাজ্যে বিজেপি।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ ফের বিতর্কে রাজ্যে বিজেপি। অভিযোগ ধর্ষণের।এই অভিযোগে অবশেষে পুলিশের জালে বিজেপির বসিরহাট সাংগঠনিক জেলার সম্পাদক রাজেন্দ্র সাহা।  চাঞ্চল্যকর অভিযোগ উঠেছে তার নামে।বৃহস্পতিবার রাতে হুগলির তারকেশ্বর থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে হাড়োয়া থানার পুলিশ।

 ওই বিজেপি নেতা বসিরহাট সাংগঠনিক জেলা সম্পাদকই শুধু নন, গেরুয়া শিবিরের অন্দরে মুকুল রায়ের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত অভিযুক্ত বিজেপি নেতা রাজেন্দ্র সাহা।অভিযোগ, তিনি হাড়োয়া এলাকার এক বিজেপি কর্মীরই মেয়ে। নির্যাতিতার পরিবারের অভিযোগ, ঘটনার দিন অনুগামীদের নিয়ে তাঁদের বাড়িতে চড়াও হন বিজেপির বসিরহাট সাংগঠনিক জেলার সম্পাদক রাজেন্দ্র সাহা। মাথায় জোর করে সিঁদুর পরিয়ে ওই তরুণীকে ধর্ষণ করেন তিনি। ঘটনার কথা জানাজানি হতেই শোরগোল পড়ে যায়। নির্যাতিতার পাশে দাঁড়ান এলাকার বিজেপি নেত্রী বাসন্তী ঘোষ। তাঁকে রাজেন্দ্র সাহা ও তাঁর অনুগামীরা রীতিমতো হুমকি দিচ্ছিলেন বলে অভিযোগ।

ঘটনার পর শেষপর্যন্ত ১১ জুলাই হাড়োয়া থানায় অভিযুক্ত বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে এফআইআর করেন নির্যাতিতার পরিবার।এই ঘটনারপর এদিকে এই ঘটনার পরই গা-ঢাকা দিয়েছিলেন বিজেপির বসিরহাট সাংগঠনিক জেলা সম্পাদক রাজেন্দ্র সাহা। শেষপর্যন্ত হুগলির তারকেশ্বর থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করল পুলিশ।এটা নিয়ে তৈরি হয়েছে রাজনৈতিক উত্তেজনা।

বিজেপি এক নেতা বলেন, এটা বিজেপিকে ভাবমূর্তি নষ্ট করার চেষ্টা করে তৃণমূল।কিন্তু সব অভিযোগ উড়িয়ে তৃণমূল বলে, নিজের দোষ ধামা চাপা দেওয়ার জন্য বিজেপি এই সব বলছে।সব নিয়ে উত্তেজনা হলেও ওই বিজেপি নেতা কে আটক করেছে পুলিশ।