অস্তিত্ব সংকটে রাজ্য বিজেপি? এবার রথযাত্রাতে স্থগিতাদেশ দিল সিঙ্গেল বেঞ্চ।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ বাংলার বুকে এবার অস্তিত্ব সংকটে বিজেপি? অন্তত এবার সিঙ্গেল বেঞ্চের নির্দেশ তেমন ই ইঙ্গিত করছে। বাংলার বুকে বিজেপির রথ যাত্রা হবে কি হবে না। এই নিয়ে চর্চার শেষ নেই। এর ই মাঝে গতকাল কোর্টে শর্তসাপেক্ষে রথযাত্রার অনুমতি দেওয়া হয়, আর তার ই ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আবার হতাশ হতে হল বিজেপিকে।



গতকাল বিচারপতি তপোব্রত চক্রবর্তীর সিঙ্গেল বেঞ্চে সিদ্ধান্ত জানানো হয়, যেখানে রথ বেরোবে তার ১২ ঘণ্টা আগে স্থানীয় প্রশাসনকে জানাতে হবে তবেই মিলবে রথ যাত্রার অনুমতি। এই রায়ে রীতিমত আনন্দের বাতাবরণ ছড়িয়ে পরে বিজেপি নেতা কর্মী দের মধ্যে। এই রায়ে আত্মবিশ্বাসী হয়ে বিজেপি সভাপতি সংবাদ মাধ্যমে জানান, 'কোর্টের থাপ্পড় খেয়ে রথ যাত্রার অনুমতি দিতে বাধ্য হল রাজ্য সরকার'। ফেসবুকে ও মেতে ওঠেন বিজেপি কর্মীরা। বিজেপি রাজ্য পেজ থেকে লেখা হয়, "আটকানো গেল না, যাত্রা হচ্ছেই।" তবে এই খুশি বেশিক্ষণ টিকলো না। এবার সিঙ্গেল বেঞ্চের রায়ে, বিশ বাঁও জলে বিজেপির রথযাত্রা।

গতকাল ই, রথযাত্রায় স্থগিতাদেশ চেয়ে আজ রাজ্যের তরফ থেকে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়। এই বিষয় নিয়ে হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি দেবাশিস কর গুপ্তের দ্বারস্থ হয় রাজ্য সরকার। রাজ্যের তরফে জানানো হয়, গোয়েন্দা রিপোর্টের উপর ভরসা করেই আমারা রথ যাত্রার বিরোধিতা করছি, কিন্তু গতকাল হলফনামা দিতে চেয়েও তা দিতে দেওয়া হয়নি। এর পরেই প্রধান বিচারপতির কোর্টে প্রশ্ন করেন, “সব রিপোর্ট খতিয়ে না দেখে কি করে হয় রায়?”।



প্রসঙ্গত, আগামী ২৮, ২৯ ও ৩১ ডিসেম্বর রথযাত্রা করবে বলে ঠিক করে বিজেপি। কৈলাস বিজয়বর্গীয় জানান, অমিত শাহের সঙ্গে কথা বলেই এই তিনটি দিন স্থির করা হয়। কিন্তু সিঙ্গেল বেঞ্চের রায়ে আপাতত কবে হবে বিজেপির রথযাত্রা তা নিয়ে প্রশ্ন উঠে গেল। এই নিয়ে যথেষ্ট হতাশ বিজেপি কর্মীরা ও। যেখানে বামেরা তাদের হারানো জমি ফিরে পাচ্ছে সেখানে বিজেপি ক্রমশ ব্যাকফুটে যাচ্ছে বলেই মত জানিয়েছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।