'হিজড়া বৃত্তি' নিয়ে কেন্দ্র সরকারের নির্দেশিকার বিরুদ্ধে, প্রতিবাদ তৃতীয় লিঙ্গেরমানুষদের।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ কেন্দ্রীয় নীতির বিরুদ্ধে আওয়াজ তুললো রূপান্তরকামীরা। সুপ্রিম কোর্টের রায় থাকা সত্ত্বেও কেন্দ্র সরকার নতুন নির্দেশিকা জারি করেছে। রূপান্তরকামীদের জেলা শাসকের দপ্তরে যেতে হবে তাদের স্ক্রিনিং টেস্ট দিতে।

আধার এবং ভোটর কার্ড থাকা স্বত্বেও কেন তাদের এই নিয়ম বলে প্রশ্ন তুলেছেন রুপান্তরকামীরা। পাশাপাশি হিজড়েদের বৃত্তি বন্ধ করবার কথাও বলা হয়েছে।কিন্তু সেটি যে একটা বৃত্তি।তাদের জন্য কোনও সংরক্ষণ নেই অথচ তা বন্ধ করতে বলা হয়েছে।তবে তাদের জীবন ধারণ কিভাবে চলবে?



শুক্র বার ইসলামপুর মহকুমা প্রেস ক্লাব ভবনে আয়োজিত একটি সাংবাদিক সম্মেলনে এভাবেই একাধিক প্রশ্ন তুলে ক্ষোভ প্রকাশ করলেন ইসলামপুরের রুপান্তরকামী ও হিজড়েরা।দিনাজপুর নতুন আলো সোসাইটির সম্পাদক জয়িতা মন্ডল জানান,তিনি একজন রূপান্তরকামী। তার পাসপোর্ট থেকে শুরু করে আধার এবং ভোটার কার্ড সব আছে। তবুও তাকে স্ক্রিনিং টেস্ট দিতে হবে কেন বলেও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি।

রাজ্যসভায় যাতে এই বিষয়ে কোনও বিল না আসে সে বিষয়ে মুখ্য মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে।রাজ্য সরকার তাদের গ্রিন পুলিশ এবং সমাজ সেবার কাজে লাগানোর বিষয়ে জানালেও সেক্ষেত্রে বৃহন্নলা চিহ্নিত হবার বিষয়টি কিভাবে হবে তা নিয়েও তারা সরকারের তরফে জানতে চাইছেন।