তৃণমূলের ব্রিগেড সমাবেশে ঘুরিয়ে সাহায্য করল বিজেপি- কিভাবে? ব্যাখ্যা করলেনসূর্যকান্ত।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ আজ চলছে রাজ্যের শাষকদল তৃণমূলের ব্রিগেড। প্রথম থেকেই শাষকশক্তির অপব্যবহার নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন রাজ্যের সব বিরোধী দলগুলি। নিয়মের কোনো তোয়াক্কা না করেই এই ব্রিগেডের ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলেই অভিযোগ।

যেমন ব্রিগেড গ্রাউন্ডে কোনো পাকা নির্মাণ করা যায়না। কিন্তু এবারেই প্রথম নজিরবিহীন ভাবে ব্রিগেডে সিমেন্ট বালির নির্মান হচ্ছে। যার অনুমতি দিয়েছে কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা দপ্তর।
এছাড়াও শহরের মধ্যে দিয়ে চলা চক্ররেল ও আজ বন্ধ থাকছে। বিবাদী বাগ স্টেশনে গতকাল বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে আজ টালা থেকে মাঝের হাট চক্ররেল পরিষেবা বন্ধ থাকবে।



ঘটনাক্রমে প্রতিরক্ষা ও রেলদপ্তর দুটিই কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনে। তাই রাজ্যের প্রধান বিরোধী শক্তি বামপন্থী রা যে দাবী করছিলেন যে রাজ্যে তৃণমূল ও বিজেপি মূলত হাত ধরাধরি করেই চলছে। সামনে শুধু দেখানোর জন্য তাদের বিরোধীতা তা আরেকবার মান্যতা পেল। এই নিয়ে রাজ্য সিপিআইএমের সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র ট্যুইট করেন "ব্রিগেডে কোনও জনসভায় এই প্রথম ইট-বালি-সিমেন্ট দিয়ে নির্মাণের অনুমতি দিল প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। * আজ বিবাদী বাগ স্টেশনে চক্ররেলের ঘোষণা, "আগামীকাল 'বিশাল' জনসভার জন্য টালা থেকে মাঝেরহাট সারাদিন চক্ররেল বন্ধ থাকবে।" সত্যি সহযোগিতার তুলনা হয় না!৩রা ফেব্রুয়ারিও এগুলি পাওয়া যাবে?"

প্রসঙ্গত আগামী ৩রা ফেব্রুয়ারী ব্রিগেডের ডাক দিয়েছে সিপিআইএম ও। সেদিনের কথা তুলেই আক্রমণ শানিয়েছেন সূর্য মিশ্র।

 

 
ব্রিগেডে কোনও জনসভায় এই প্রথম ইট-বালি-সিমেন্ট দিয়ে নির্মাণের অনুমতি দিল প্রতিরক্ষা মন্ত্রক।
* আজ বিবাদী বাগ স্টেশনে চক্ররেলের ঘোষণা, "আগামীকাল 'বিশাল' জনসভার জন্য টালা থেকে মাঝেরহাট সারাদিন চক্ররেল বন্ধ থাকবে।"
সত্যি সহযোগিতার তুলনা হয় না!
৩রা ফেব্রুয়ারিও এগুলি পাওয়া যাবে?

— Surjya Kanta Mishra (@mishra_surjya) January 18, 2019