বিশিষ্ট নাট্যশিল্পী নাট্য-নির্দেশক সুচারু দাসের স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হল চন্দননগরে।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ বিশিষ্ট নাট্যশিল্পী নাট্য-নির্দেশক প্রয়াত সুচারু দাসের স্মরণ-সভা হয় রবিবার সকালে চন্দননগর রবীন্দ্র-ভবনে।  চন্দননগর ক্লাসিক ও থিয়েটার চন্দননগর সংস্থার যৌথ উদ্যোগে এই কর্মসূচি হয়।

এদিন শোকপ্রস্তাব পাঠ করেন নাট্যকর্মী গৌতম চন্দ্র। মাল্যদান করেন সাংস্কৃতিক আন্দোলনের নেতা রতন ব্যানার্জী, শোভন সেনগুপ্ত, সহ বহু নাট্যকর্মী, নাট্যাভিনেতা এলাকার বহু নাট্যানুরাগী মানুষ। স্মরণসভায় বক্তব্য রাখেন অমিতাভ চক্রবর্তী, জগবন্ধু মুখার্জি, রতন ব্যানার্জী, মলয় কুমার সেন প্রমুখ।




তারা বললেন, "অভিনেতার শরীর মরে, মরেনা তার নাট্যক্ষুধা। আবার কোন অন্যগ্রহে, দেখা হবে সুচারু দা" সুচারু দার চলে যাওয়া সমস্ত সাংস্কৃতিক মননসম্পন্ন মানুষ ও তাদের নিয়ে যে পরিবার সেই পরিবারের ক্ষতি। সুচারু দার সাথে ভাব ভাবনায় মিলে যেত কারণ তিনি আদ্যপ্রান্ত বামপন্থী ছিলেন। নেপথ্য নাটকে এক মাইলষ্টোন রচিত হয়েছিলো তার প্রচেষ্টায়। শিরদাঁড়া সোজা করে নাট্য ও সাংস্কৃতিক জগৎ কে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কথা বলেন বক্তারা। কবিতায় গানে মূকাভিনয় দিয়েই চোখের জলে জেলার বিশিষ্ট নাট্যব্যক্তিত্ব থেকে নাট্যঅনুরাগী মানুষ নাট্যকার সুচারু দাস কে স্মরণ করলেন। বহু নাট্যানুরাগী মানুষ উপস্থিত হয়েছিলেন।