চাপের মুখে কুণাল ঘোষ। মমতার নামে এক সময়ের বিস্ফোরক বয়ান ই কি কাল হবেকুনালের?

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ পুলিশ কমিশনার রাজীবকুমারের পাশাপাশি, এবার আবার জেরার মুখোমুখি হতে পারেন তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন সাংসদ কুণাল ঘোষ। তাঁকেও শিলঙে জেরা করা হবে বলে ঠিক করা হয়েছে।

এর আগে চিটফান্ড মামলায় জেরার মুখে পড়েছেন কুণালবাবু। দীর্ঘদিন হাজতবাস ও করেছেন। সারদা কান্ড সামনে আসার পর রাজ্য সরকার দ্বারা গঠিত সিট তাকে গ্রেপ্তার করে। পরবর্তীতে মামলার ভার যায় সিবিআইএর হাতে।

জেলে বন্দী থাকাকালীনই তৃণমূল থেকেও তাকে বহিষ্কার করা হয়। যদিও কুণাল ও একেবারে চুপচাপ ছিলেননা। বারেবারে দলের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও আরো অনেক নেতাকে সারদা কান্ডে জড়িত বলে মুখ খুলেছেন তিনি। তৎকালীন বিধান-নগরের পুলিস কমিশনার রাজীব-কুমারের নামও ছিল তাঁর তালিকায়। দীর্ঘদিন হাজতবাসের পর কিছুদিন আগেই শর্তসাপেক্ষে জামিন হয় তাঁর।





সারদা কান্ডের তদন্তেই সিবিআই রাজীব-কুমার কে বারবার জিজ্ঞাসাবাদ করতে ডাকলেও তিনি যাননি বা তদন্তে সহায়তাও করেননি। এই অবস্থায় গত ৩রা ফেব্রুয়ারি রাজীব-কুমারকে গ্রেপ্তার করতে গেলে সিবিআই কে রাজ্যপুলিশ হেনস্থা করে। রাজ্যে ধুন্ধুমার পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 'রাজীব-কুমার কে গ্রেপ্তার করা যাবেনা' এই দাবীতে ধর্নায় বসেন।

এর পরিপ্রেক্ষিতে সুপ্রীম কোর্ট রায় দেয় রাজীব-কুমার কে গ্রেপ্তার করা যাবেনা। তবে তদন্তে সবরকম সহায়তা করতে তিনি বাধ্য থাকবেন। সিবিআই ডাকা মাত্রই যেতে হবে তাকে।

যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এই জিজ্ঞাসাবাদ পর্ব শুরু করতে চায় সিবিআই। সে জন্য আনা হয়েছে সিবিআইএর সুদক্ষ আধিকারিকদের। উল্লেখযোগ্যরা হলেন এস পি জগরূপ, এস গুসিনহা, অ্যাডিশনাল এসপি ভি এম মিত্তল, সুরেন্দ্রকুমার মল্লিক, চন্দ্র দীপ, সুরজিৎ দাস  থেকে  শুরু করে আরও কয়েকজন।এখন দেখার রাজীব-কুমার ও কুণাল ঘোষের শিলঙের এই জিজ্ঞাসাবাদ কতটা ফলপ্রসূ হয়। তবে এক সময়ে মমতাকে নিয়ে মুখ খুলেছিলেন কুনাল ঘোষ। এবার মমতার বিরুদ্ধে মমতার নামে এক সময়ের বিস্ফোরক বয়ান ই কাল হবে কুনালের? বাড়ছে জ্বল্পনা।