চাঞ্চল্যকর খবর। নারী দিবসের দিন, তৃণমূল বিজেপির লড়াইতে গুলিবিদ্ধ ছাত্রী।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ চোপড়ার কুমারটোলে দলীয় পতাকা ছেঁড়াকে কেন্দ্র করে তৃণমূল ও বিজেপি কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের অভিযোগ । অভিযোগ, সংঘর্ষ চলাকালীন গুলি ও বোমা ফাটানো হয়। দুই পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ দশম শ্রেণীর এক ছাত্রী। জখম ছাত্রীকে প্রথমে চোপড়া দলুয়া ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে আহত ছাত্রীকে ইসলামপুর হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। আহত ছাত্রীর নাম প্রিয়াঙ্কা সিংহ।

তাঁর পায়ে গুলি লেগেছে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে। ঘটনার খবর পেয়েই জেলা পুলিশ সুপার সহ বিশাল পুলিশ বাহিনী পৌঁছেছে কুমারটোলে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।জখম ছাত্রীর বাবা তথা বিজেপি কর্মী সত্যেন সিংহ বলেন, হরিবাসর মন্দিরের সামনে কয়েকজন নিজেদের মধ্যে বচসায় জড়িয়ে পড়ে। আচমকাই গুলি চালানো শুরু করে । পতাকা ছিঁড়ে দেওয়ার অভিযোগ করছিল তৃণমূল। ঘটনায় আমার মেয়ে গুলিবিদ্ধ হয়।



তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা গুলি চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।এদিকে সত্যেন বাবুর অভিযোগকে নস্যাৎ করে তৃণমূল কর্মী রবীন সিংহের অভিযোগ, দলীয় কার্যালয় থেকে পতাকা খুলে নিয়েছে বিজেপি। ওই নিয়েই কথা চলছিল। আচমকাই গুলি চালায় ওরা। দলীয় নেতৃত্বকে পুরো ঘটনা জানিয়েছি। পুলিশকেও জানানো হয়েছে। ঘটনার খবর পেয়েই কুমারটোল এলাকায় পৌঁছান জেলা পুলিশ সুপার সুমিত কুমার সহ চোপড়া থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী। ঘটনার সাথে কে বা কারা জড়িত সেই বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।