বিক্ষোভের মুখে তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ বাম আমলেও এরকম ঘটনা ঘটেনি।যা আজ ঘটলো ফুরফুরায়। নিজের লোকসভা কেন্দ্রে এবার কালো পতাকা দেখলেন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।ফুরফুরা শরিফে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে পড়লেন শ্রীরামপুরের দুবারের সাংসদ তথা শ্রীরামপুর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।মঙ্গলবার ফুরফুরা শরিফে নির্বাচনী প্রচারে যান এই কেন্দ্রের দুবারের সাংসদ।সেখানে পৌঁছনো মাত্র বিক্ষোভের মুখে পড়েন কল্যাণ-বাবু। তাঁকে দেখে ক্ষোভে ফেটে পড়েন সংখ্যালঘু মানুষজন।ক্ষুব্ধ মানুষজন-কালো পতাকা দেখান ও রাস্তা অবরোধ শুরু করেন উত্তেজিত মানুষজন।অবস্থা খারাপ বুঝে রাস্তা পরিবর্তন করে কল্যাণ বাবু মুন্ডলিকার দিকে চলে যান ।

ফুরফুরা শরিফের পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকী সাহেব ক্ষুব্ধ হয়ে অভিযোগ করেন সাম্প্রদায়িকতার ভয় দেখিয়ে এলাকায় ভাঁওতাবাজি-করছেন তিনি।তাই এই ভাবে আর ভোট নেওয়া যাবেনা।স্বাধীনতার পরবর্তী বাংলার প্রথম গ্রামীণ হাসপাতালের দূরবস্থার কথা তুলে ধরেন।তিনি বলেন হাসপাতালের পর্যাপ্ত সুযোগ সুবিধা নেই কেনো?।উন্নয়ন সেরকম কিছু হয়নি।এছাড়া দাদা হুজুরের নামে কেন বিশ্ববিদ্যালয় হল না? এইসব নিয়ে বিস্তর অভিযোগ করেছেন তিনি।

আরও বলেন বিজেপি ও সাম্প্রদায়িকতার ভয় দেখিয়ে সংখ্যালঘুদের ভোট লুট করা যাবেনা।আমরা চাই এলাকার সার্বিক উন্নয়ন।ভারতের অন্যতম তীর্থভূমি ফুরফুরা শরীফ কে কেন্দ্র করে যে ভাবে কল্যাণ ব্যার্নাজী ও স্নেহাশিস চক্রবর্তী অপরিচ্ছন্ন রাজনীতি করছেন তা আমরা মেনে নেবো না।এসব নিয়ে অবশ্য মুখ খুলতে নারাজ হুগলী জেলা তৃণমূল।সাংসদও এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করেননি ।