ডোমকলে ব্যাপক বোমাবাজি, উদ্ধার বেশ কয়েকটি তাজা বোমাও

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ মুর্শিদাবাদের ডোমকল বরাবরই স্পর্শকাতর বুথ বলেই পরিচিত।এবারেও অন্যথা হয়নি সেটার। সকাল ১০ টার সময় ব্যাপক হারে বোমাবাজি হয় সেখানে। স্বাভাবিক ভাবেই এলাকাবাসী ভীত হয়ে পড়েন।২০১৪ এর লোকসভা ভোট ২০১৬ এর বিধানসভা ভোট এবং পরে ২০১৮ এর পঞ্চায়েত ভোট সব ভোট গুলোতেই খুন, জখম, মারামারি হানাহানির খবরে সবার প্রথম উঠে এসেছে এই কেন্দ্রের নাম।

মুর্শিদাবাদের ডোমকলের ২২নং বুথে টিকটিকি পাড়ার প্রাথমিক বিদ্যালয় বোমাবাজি হয়। এলাকাবাসীর অভিযোগ সকালে বোম পড়ছিল। তাই ভয় পেয়ে ভোট গ্রহণ কেন্দ্রে আসতে পারেনি তারা। বোমাবাজির চিহ্নও স্পষ্ট এলাকায়। বুথ থেকে প্রায় ৩০০ - ৪০০ কিলোমিটার দূরে বোমাবাজি হয়। পেটো, সকেট বোম ব্যবহার করা হয়।
অভিযোগ উঠেছে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে।তৃণমূলের অভিযোগ কংগ্রেসের কর্মীরাই বোমা ব্যবহার করেছে। যত্র তত্র ছড়িয়ে রয়েছে বোমা। তৃণমূলের লোকজনদের মারধোরেরও অভিযোগ উঠেছে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। তৃণমূল কর্মীকে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয়েছে।ভোটারদেরও ভোট দিতে বাধা দেওয়া হয়েছে।এমনই অভিযোগ কংগ্রেসের বিরুদ্ধে।যদিও কংগ্রেসের তরফ থেকে সেই ঘটনা অস্বীকার করা হয়েছে। পরবর্তী সময় পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। কিউ আর টির টিম সেখানে উপস্থিত ছিল না। পরে এলাকাতেও টহল দেয় কেন্দ্রীয় বাহিনী।

কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকা সত্ত্বেও কেনো এমন বোমাবাজি হল। সেই বিষয় কেন্দ্রীয় বাহিনীর কর্তব্য নিয়েও উঠছে প্রশ্ন। যদিও জানা যায় ভোট গ্রহণ কেন্দ্র থেকে প্রায় ৩০০ - ৪০০ কিলোমিটার দূরে বোমাবাজি হয়। যাতে ভোটাররা কেন্দ্রে এসে পৌঁছতে না পারে। পরে সেই মতোই ভোটারদের যাতে আসতে আর অসুবিধা না হয় তার ব্যাবস্থা নিয়েছে রাজ্য পুলিশ এবং কেন্দ্রীয় বাহিনী।