আমতায় ৪০ টি বোমা উদ্ধার তৃণমূল নেতার বাড়ি থেকে

তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর লড়াইয়ে ফের চন্দ্রপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় উত্তেজনা ছড়ালো তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে। শুক্রবার সকাল থেকে শুরু হয় দুই গোষ্ঠীর মধ্যে লড়াই ।

রামচন্দ্রপুর গ্রাম থেকে তৃণমূলের এক নেতার বাড়ি থেকে প্রায় ৪০ টি মতো তাজা বোমা উদ্ধার করে আমতা থানার পুলিশ। এলাকার বাসিন্দারা জানিয়েছেন পুলিশ বোমা ছাড়াও বোমা তৈরির মশলা, কারখানা, সকেট ও কৌটো বোমা উদ্ধার করেছে। কিন্তু্ু পুলিশ জানিয়েছে - তারা শুধুমাত্র বোমা পেয়েছেন। এলাকাবাসীরা জানিয়েছেন পঞ্চায়েত নির্বাচন প্রক্রিয়া শুরু হতে না হতেই তাদের এই গোষ্ঠীদ্বন্দ শুরু হয়ে গেছে। পঞ্চায়েত প্রধান সাহানারা বেগমের স্বামী তৃণমূলের এর অঞ্চল সভাপতি আফসার মিদ্যার সাথে তৃণমূল নেতা শেখ ফারুকের এই গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব । তৃণমূলের সন্ত্রাসের কারণে বিরোধীরা কেউই মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারেনি এই পঞ্চায়েতে।

১১ টি সিটের মধ্য আফসার গোষ্ঠী ৫ টি এবং ফারুক গোষ্ঠী ৬ টি সিটে মনোনয়ন জমা দেওয়ায় ফারুক গোষ্ঠীর লোকজন ফারুককে সম্ভাব্য প্রধান হিসেবে ধরে নিয়ে এলাকা দখল করতে গেলে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে বেঁধে যায় তুমুল উত্তেজনা এবং মুহুর্মুহু গুলি চলতে থাকে এবং বোমা পড়তে থাকে । ভাঙচুর করা হয় কিছু বাড়ি। দুই পক্ষের মধ্যে বেশ কয়েকজন আহত হয় কিন্তু নিহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি ।

ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ বন্দুক এবং বোমা উদ্ধার করে। পুলিশ যখন তৃণমূল নেতা আব্দুল্লাহর বাড়িতে যায় তখন সেখান থেকে চল্লিশটি বোমা এবং দুটি মোটরবাইক উদ্ধার করে তবে এখন পর্যন্ত এই ঘটনায় অভিযুক্ত কাউকেই গ্রেফতার করেনি পুলিশ। ঘটনার পর থেকেই ফেরার তৃণমূল নেতা আহদুল্লা।