ডাক্তার বা ইঞ্জিনিয়ার নয় শিক্ষিত রাজনীতিবিদ হতে চাই, জানালেন শ্রুতি

সদ্যই প্রকাশিত হয়েছে ২০১৮ সালের মাধ্যমিকের ফলাফল। মেধাতালিকায় স্থান পাওয়া প্রত্যেক ছাত্রছাত্রী জানিয়েছেন তাদের ভবিষ্যত চিন্তাভাবনার কথা। আর এখানেই নিজের ব্যতিক্রমী চিন্তাধারার পরিচয় দিল শ্রুতি। মাধ্যমিকের মেধাতালিকায় যার স্থান ষষ্ঠ।

ডাক্তার, ইঞ্জিনীয়ার বা প্রফেসর দের ভীড়ে শ্রুতি হতে চায় রাজনীতিক। হ্যাঁ ঠিকই পড়ছেন। শিক্ষিত রাজনীতিক হয়ে সমাজটাকে পাল্টে দেবার স্বপ্নই দেখে সে। বাঁকুড়ার মিশন গার্লস হাইস্কুলের ছাত্রী শ্রুতি সিংহমহাপাত্র ৬৮৪ নম্বর পেয়ে রাজ্যের নীরিখে মাধ্যমিকে ষষ্ঠ স্থান অধিকার করেছে। কিন্তু কেন এই ব্যতিক্রমী চিন্তাভাবনা? শ্রুতি জানিয়েছে কাগজে বা টিভিতে বর্তমান রাজনীতির যা পরিস্থিতি রোজ দেখতে হচ্ছে তা বেশ হতাশাজনক। তাই সে বদল আনতে চায়। দৃঢ়চেতা শ্রুতির সাফ বক্তব্য "রাজনীতিতে শুধু হানাহানি হিংসা রক্তপাত দেখছি, রাজনৈতিক আদর্শ তলানিতে যাচ্ছে, যাচ্ছে শিক্ষার অভাবে। রাজনীতির জন্যও শিক্ষা প্রয়োজন। আমি পড়াশোনার পাশাপাশি সুযোগ পেলে রাজনীতিতে মন দেব। এটা আমার স্বপ্ন"।

শ্রুতির বাবা কালীপদ সিংহমহাপাত্র স্কুলশিক্ষা দপ্তরে চাকরী করেন। তাঁকে এ ব্যপারে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানালেন, তিনি বা শ্রুতির মা কোনো মতেই শ্রুতির ইচ্ছায় বাধা দেবেন না। উল্টে তাদের পূর্ণ সহযোগিতা পাবে মেয়ে। যেখানে বর্তমান পরিস্থিতিতে বাবামায়েরা সন্তান কে রাজনীতি থেকে দুরে সরিয়ে রাখতে ও কেরিয়ার সর্বস্ব করে রাখতে সচেষ্ট সেখানে কালীপদবাবুর এই অবস্থান প্রেরণা জোগায় বৈকী।

শ্রুতি নিজের স্বপ্ন সফল করতে পারল কীনা সময় বলবে। তবে এটুকুই আশার কথা দেশের ভবিষ্যত প্রজন্ম শিক্ষার মাধ্যমে দেশের বদল চাইছে ও নিজে তার কান্ডারী হতে ইচ্ছুক। আপাতত এই স্বপ্ন নিয়ে এগিয়ে চলুক শ্রুতি। শুভেচ্ছা থাক।