ছেলে নেই, তবু হাজারো সন্তানের অবিভাবক হয়ে উঠেছেন 'ইমাম'

গতকাল বেড়িয়েছে মাধ্যমিকের ফল। রাজ্যের মধ্যে পাসের হার ৮৫.৪৯ শতাংশ। এই সময় ও মনে করিয়ে দিচ্ছে মাধ্যমিক পরীক্ষার কিছু দিন পরেই সাম্প্রদায়িক হিংসার বলি হওয়া আসানসোলের নুরানী মসজিদের ইমাম মাওলানা ইমদাদুল্লাহ রশিদীর পুত্র সিবগাতুল্লাহ রশিদীকের কথা।

রাম নবমী নিয়ে চলা সহিংসতায় ইমাম মাওলানা ইমাদুল রশিদির ১৬ বছর বয়সী কিশোর ছেলেকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। সেই সময় পুত্র শোক কে উপেক্ষা করে তার বাবা মাওলানা ইমদাদুল্লাহ প্রিয় ছেলের কবরে মাটি দিতে দিতে উপস্থিত সকলকে বলেছিলেন , ‘‘আমার ছেলে হত্যার জন্য কেউ যদি কোনো ধরণের প্রতিশোধ নিতে যায়, আমি আসানসোল ছেড়ে চলে যাবো। আমি তাদেরকে বলেছি যে, আপনারা যদি আমাকে ভালোবাসেন, তাহলে কেউ একটা আঙ্গুলও তুলবেন না।’’ দাঙ্গার আগুনে জল ঢেলে দিয়েছিলেন তিনি। খুনের বদলা খুন নয় প্রমান করেছিলেন তিনি।

গতকাল রেজাল্ট বেড়িয়েছে পুত্রের, মৃত সিবগাতুল্লাহ উর্দুতে ৭১, ইংরেজি ৬১,অংকে ৪০, ভৌত বিজ্ঞানে ৪৫, জীবন বিজ্ঞানে ৫৭, ইতিহাসে ৭৩ এবং ভূগোলে ৬৫ নম্বর পেয়েছে। ছেলে আজ নেই তবু ছেলের মার্কশিট হাতে নিয়ে ইমাম মানুষের সেবায় নিয়োজিত হবার আহ্বান জানান সকল কে, তিনি বলেন ‘সিবগাতুল্লাহ শুধু ইমাম সাহেবের ছেলে এটা কোনও বিষয় নয়। যে ছাত্র অর্থের জন্য পড়তে পারছেনা, যে ছাত্র টাকার অভাবে স্কুলে যেতে পারছেনা তাদের পাশে দাঁড়াতে হবে তোমাদের। কখনো ধর্ম-বর্ণ দিয়ে শুধু ছাত্র নয় কোন মানুষকে বিচার কর না। ’ পুত্র হারিয়ে এভাবেই হাজারো পুত্রের অবিভাবক উঠেছেন ইমাম। যেখানে সাম্প্রদায়িক হিংসা প্রতিদিন আমাদের গ্রাস করছে সেখানে মানবিকতার ওপর নাম হয়ে উঠছেন ইমাম।