বাংলা নির্মল নয়। লজ্জার পরিসংখ্যানে পিছনে ঠাঁই বাংলার।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ কেন্দ্রীয় সরকারি স্বচ্ছতা সর্বেক্ষণ অর্থাৎ পরিচ্ছন্নতার দৌড়ে সবথেকে পিছনের সারিতে ঠাঁই হল বাংলার। ১ লক্ষের বেশী জনসংখ্যার মোট ৫০০০টি শহরের ওপর চলেছিল এই সমীক্ষা। আর সেখানেই সবথেকে অপরিচ্ছন্ন শহর হিসাবে নাম উঠে এসেছে দক্ষিণবঙ্গের ভদ্রেশ্বর এর। শুধু তাই নয়, লজ্জার পরিসংখ্যানে মোট দশটি অপরিচ্ছন্ন শহরের মধ্যে সাতটিই পশ্চিমবঙ্গের। দেখে নিন ক্রমতালিকা-

ভদ্রেশ্বর (পশ্চিমবঙ্গ)
বাঁকুড়া (পশ্চিমবঙ্গ)
সিমারি বখতিয়াপুর (বিহার)
চাঁপদানি (পশ্চিমবঙ্গ)
বাঁশবেড়িয়া (পশ্চিমবঙ্গ)
চান্দবালি (ওড়িশা)
খড়দহ (পশ্চিমবঙ্গ)
বৈদ্যবাটি (পশ্চিমবঙ্গ)
পানিহাটি (পশ্চিমবঙ্গ)
খোদা মাকনপুর (উত্তরপ্রদেশ)
শ্রীরামপুর বা পাহাড়ের রাণী দার্জিলিং এর মত শহরও আছে এই তালিকায়। তবে একটু ওপরের দিকে।

এই বছরেই প্রথম এই স্বচ্ছতা সর্বেক্ষণে অংশগ্রহণ করে পশ্চিমবঙ্গ। এই সমীক্ষাটি প্রধানমন্ত্রীর স্বচ্ছ ভারত যোজনার মধ্যেই পড়ে। শনিবার এই সমীক্ষার ফলাফলের রিপোর্ট প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই নিয়ে টানা দ্বিতীয় বার স্বচ্ছ শহর হিসাবে প্রথম স্থান অধিকার করে মধ্যপ্রদেশের ইন্দোর। ইন্দোরের মেয়র মালিনী গৌড় ও মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানের হাতে পুরস্কার তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।
তালিকায় দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান যথাক্রমে ভোপাল ও চন্ডীগড়ের। এক থেকে দশের মধ্যে আছে নয়া দিল্লী বা মুম্বাই এর মত শহরও।
তালিকায় শীর্ষে থাকা শহর গুলি ক্রমানুসারে- ইন্দোর, ভোপাল, চন্ডীগড়, নয়াদিল্লী, বিজয়ওয়াড়া, তিরুপতি, বিশাখাপত্তনম, মাইসো,র নবি, মুম্বাই ও পুনে।

এ প্রসঙ্গে নগরোন্নয়ন দফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে তারা এ ফলাফল সম্পর্কে অবগত। নির্মল বাংলা নামে পরিচ্ছন্নতার যে প্রকল্প চালানো হয় তাতে জোর দেওয়া হবে বলেই জানিয়েছে মন্ত্রক।