বিজেপি নেত্রীকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেবার অভিযোগে জেল বন্ধী বিজেপির হেভিওয়েটনেতা। কৌশলে চুপ বিজেপি।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল হয়ে উঠতে নানান ইস্যুতে জোরদার আন্দোলন চালাচ্ছে বিজেপি। দলীয় কর্মীদের মারধোর বা মিথ্যা মামলায় গ্রেপ্তারের মত বিষয় নিয়েও প্রতিবাদে সরব থেকেছে তারা। কিন্তু এবার তারই ব্যতিক্রম ঘটছে দক্ষিণ দিনাজপুরের বিজেপি জেলা সভাপতি শুভেন্দু সরকারের ব্যাপারে। দীর্ঘদিন জেলবন্দি থাকলেও তাঁর ব্যাপারে টুঁ শব্দও করছেন না মুকুল রায় থেকে দিলীপ ঘোষ, কোনও হেভিওয়েট নেতাই।

প্রসঙ্গত ৫ই জুন জেলা বিজেপির মহিলা মোর্চার সহসভাপতি মৌসুমি মজুমদারের দেহ উদ্ধার হয় তার নিজের বাড়ি থেকেই। সন্দেহ আত্মহত্যাই। মৌসুমীর আত্মীয়রা শুভেন্দু সরকারের নামে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেবার অভিযোগ করেন। ৮ই জুন শুভেন্দুকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা বিজেপির তরফে ব্লকস্তরে পথ অবরোধ বা থানা ঘেরাও এর মতো কর্মসূচী নেওয়া হলেও রাস্তায় নামেননি কোনো হেভিওয়েট নেতাই। সম্প্রতি দক্ষিণ দিনাজপুরে দলীয় কর্মসূচীতে যোগ দিলেও জোরালো ভাবে এ বিষয় কোনো মন্তব্য করেননি রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বা কর্মীদেরও কী করা উচিত সে বিষয় কোনো বার্তা দেননি।

পরে অবশ্য তিনি জানান শুভেন্দুবাবুর পাশে দল সবসময় আছে। যা হবার আইনি পথে হবে। তবে দলের ওপরস্তরের এহেন উদাসীনতা নিয়ে ইতিমধ্যে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে দলের অন্দরেই।