দলের প্রয়োজনে আবার কি ফিরতে চলেছেন বিতর্কিত তৃণমূল ছাত্র নেতা?

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ ঠিক ছিল ১০ দিনের মধ্যেই ঘোষণা হবে নাম, কিন্তু ২১ শে জুলাইয়ের জন্য ঘোষণা করা যায়নি নাম। তাই এবার তৃণমূল ছাত্র পরিষদের নেতা কে হবে সেই নিয়ে বাছাই শুরু হল তৃণমূলে।

তৃণমূল ছাত্র পরিষদ নিয়ে একাধিক বার বেকায়দায় পরতে হয়েছে তৃণমূল কে। কখন ও তোলাবাজি, কখন ও দাদাগিরি তে নাম জড়িয়েছে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের। মমতার কথা তেও কর্ণ পাত করে নি ছাত্ররা। তাই এর কারণ বিশ্লেষণ করে ভালো ছাত্র নেতা আনতে চায় তৃণমূল।

তবে এই ভালো ছাত্র নেতার সন্ধান করা ও অনেক টা চাপের হয়ে পরেছে তৃণমূলের কাছে। কারণ জানা যাচ্ছে বর্তমানের ছাত্র নেতারা তৃণমূলের ইতিহাস জানেন না। এবারের ২১ শের সভাতেও মিলেছে সেকথা। একাধিক ছাত্র দের জিজ্ঞাসা করেও মেলেনি শহীদ দিবস কি? তাই আবার পুরনো ছাত্র নেতাকেই ফিরিয়ে আনার জল্পনা চলছে।

জানা যাচ্ছে তৃণমূলের পুরনো ছাত্র নেতা অশোক রুদ্রকেই আবার ফিরিয়ে আনার জন্য দলের অভ্যন্তরে মত রেখেছে ছাত্রের দায়িত্বে থাকা পার্থ বাবু। একসময় তৃণমূল ছাত্র পরিষদের রাজ্য সভাপতির পদ থেকে অশোক রুদ্রকে সরিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলের ছাত্র সংগঠনের দায়িত্ব তুলে দিয়েছিলেন জয়া দত্তের কাঁধে। আর সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাধ্য হয়েই কেড়ে নিলেন জয়ার পদ। ২০১৬ সালে অপসারিত হন অশোক রুদ্র। তার ঠিক এক বছর আগেই শঙ্কু দেব পাণ্ডা কে ছাত্রের সভাপতি পদ থেকে সরানো হয়।

তবে অশোক রুদ্রর নামে একাধিক অভিযোগ রয়েছে। দলের অভ্যন্তরে ও খুব একটা ভালো জায়গা নেই অশোক রুদ্রর। কিন্তু এই অবস্থায় ছাত্র রাজনীতি বোঝে এমন কাউ কে দলে আনতে চাইছে তৃণমূল। তবে এই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

 

পড়ুনঃ লোকসভায় তৃণমূলের টিকিতে দাঁড়াতে পারেন যে সব হেভি ওয়েটরা। যা দেখে চমকে যাবেন আপনি।