বিজেপি নয়, বামেরাই যে এখন ও বাংলার প্রধান বিরোধী শক্তি। আজ বুঝিয়ে দিলরাজপথ।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ ব্যস্ত বাসে, পাড়ার চায়ের দোকানে, কিংবা ভিড় ট্রেনে রাজনীতি প্রিয় বাঙ্গালির কানে কারা যেন পৌঁছে দিয়েছিল, শেষ হয়ে গেছে বামেরা। বাংলার মাটি চাইছে বিজেপি কে। তৃণমূল কে আটকাতে এক মাত্র পথ বিজেপি। চুপ ছিলেন বাম কর্মীরা। তবে এবার রাজপথেই উত্তর ফিরিয়ে দিলেন ঘামে ভেজা কৃষক, মজদুররা।

আজ সারা ভারতের ৭২০ এর মধ্যে ৪৫০ টি জেলায় এই জেল ভরো কর্মসূচীর ডাক দেওয়া হয়েছিল। আর এই কর্মসূচিতে ১০ এ ১০ পেয়ে তৃণমূল বিজেপি কে বার্তা দিল বাম নেতারা। আমাদের বাংলা জুড়ে লাখো লাখো মানুষ পথে নেমেছিল, শুধু বৃদ্ধ নয় কালো চুলের ছাত্র যুব দের ভিড় ছিল দেখার মত। নবীন প্রবীণের এই সমন্বয়ে সফল হয় এই কর্মসূচী।

মূলত সারা দেশ জুড়ে কৃষক আত্মহত্যার প্রতিবাদে, ন্যূনতম মজুরি ১৮ হাজার টাকা করার দাবি এছাড়া সম কাজে সম বেতনের দাবি সহ অনেক গুলি দাবি নিয়ে মাঠে নামে বাম সংগঠন গুলি। গতকাল বাম নেতা শ্রমিক লাহিড়ী তৃণমূল কে কটাক্ষ করে বলেন, সারদা, নারদা তে যাদের জেলে থাকার কথা, তারা জেলের বাহিরে। তাই আগামীকাল আমারা শ্রমিক,কৃষক, ছাত্র, যুবরাই জেলে যাব বিচার চাইতে।

বিজেপি র সভা সমাবেশ নিয়ে অনেকে মাতলেও বামেরা যে এখন ও বিরোধী শক্তি তা প্রমান করে দিয়েছে আজ কের কর্মসূচী। সূর্য মিশ্র ও এই আন্দোলনের সমর্থনে বলেছিলেন "আমার বিরুদ্ধে লক্ষ লক্ষ এফআইআর করতে পারেন, আমি পরোয়া করি না।" আর সেই পথেই এগিয়ে ভারত ছাড় আন্দোলনের ৭৫ বছর পর, মোদী কে দেশ ছাড়ার দাবি জানিয়ে সারা দেশের বুকে বিজেপির ঘুম উড়িয়ে ইতিহাস গড়ল বামেরা।

 

পড়ুনঃ জল কামানের আঘাতে ভিজে গেছে শরীর তবু ময়দানে টিকে থেকে লড়াই দিলেন মানিক সরকার।

 

 

 

 

 

আমাদের খবর দেখতে যুক্ত থাকুন আমাদের ফেসবুক পেজে, ক্লিক করুন এখানে
আমাদের খবর Whatsapp এ পেতে, যুক্ত হোন আমাদের Whatsapp গ্রুপে, ক্লিক করুন এখানে