Homeরাজ্যসেনাবাহিনীর অনুমতি পেলে ফেব্রুয়ারি মাসেই ব্রিগেডে সভা করবে বামেরা।

সেনাবাহিনীর অনুমতি পেলে ফেব্রুয়ারি মাসেই ব্রিগেডে সভা করবে বামেরা।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ ২১ সে জুলাইয়ের সভা থেকে আগামী ১৯ এ জানুয়ারি ব্রিগেডের ডাক দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এই ১৯ এর সমাবেশ থেকেই বিজেপি কে ‘ফিনিশ’ করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। ব্রিগেড সমাবেশের ডাক দেবার পরেই, বঙ্গ বিজেপি ও ব্রিগেড সমাবেশের ডাক দেয়। যদিও তারিখ নিয়ে সমস্যার কারণে দিন এখন ও নির্ধারিত হয়নি। কিন্তু রাজ্যের অন্যতম প্রধান বিরোধী শক্তি বামেদের পক্ষ থেকে তখন ই কোন ব্রিগেড ঘোষণা করা হয়নি। কিন্তু এবার সেই প্রতীক্ষার বাঁধ ভাঙ্গতে চলেছে বলেই জানা যাচ্ছে।



গত মঙ্গলবার বামদলগুলি পক্ষ থেকে একটি বৈঠক থেকে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ আলোচনায় বসা হয়। যেখানে যেমন ৬ ই ডিসেম্বর বিজেপির বাবরি মসজিদ ধ্বংসের তারিখে সারা রাজ্য জুড়ে ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি দিবসের’ ডাক দেওয়া হয়েছে তেমন ই ব্রিগেড সমাবেশ নিয়ে ও আলোচনা হয়েছে বলে সূত্রের খবর। বামফ্রন্টের তরফে জানানো হয়, ২০১৯-এর ফেব্রুয়ারি মাসে ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে সভা করবে তারাও।

সূর্যকান্ত মিশ্র বরাবর ই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে এলাকায় কর্মসূচী কে বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন। তাঁর জন্য এলাকা ভিত্তিক জ্যাঠা থেকে শুরু করে এলাকা ভিত্তিক জেল ভরো কর্মসূচীকে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। কারণ বাম নেতাদের মতে, ব্রিগেডের জনসভায় ভিড় হলে ও এলাকার কর্মসূচীতে অনেক ক্ষেত্রেই কর্মীদের সেই রকম উপস্থিতি লক্ষ করা যাচ্ছিল না। এর জন্য তৃণমূলের আক্রমণ কেই বামেরা দায়ি করেছেন বার বার। তাই এই এলাকা ভিত্তিক কর্মসূচীর দিকে বেশি নজর দেন বাম নেতারা।



কিন্তু এই মুহূর্তে বিজেপি এবং তৃণমূল কে বার্তা দিতে ব্রিগেড ভরাবার আহ্বান জানাচ্ছে বামেরা। দিন এখন ও নির্ধারিত না হলে ও ফেব্রুয়ারি মাসের শুরুর দিকে এই সভা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। ৩ রা ফেব্রুয়ারী বামেদের ব্রিগেড হতে পারে বলে মনে করছেন অনেকেই। তবে অনেকের মতে ফেব্রুয়ারীর শেষে ও হতে পারে এই সমাবেশ। এর আগে ব্রিগেডের অভিজ্ঞতা বামেদের অনেক টাই ভালো। এবারে ব্রিগেডে অতীতের সব রেকর্ড কে ভেঙ্গে দেবে বলে মনে করছেন বামে নেতারা।

FOLLOW US ON:
'বিজেপি
Rate This Article:
NO COMMENTS

Sorry, the comment form is closed at this time.