Homeরাজ্য‘বাংলা’ জয় বামেদের। বামেদের দেখানো পথেই হাঁটল বাংলার ভবিষ্যৎ।

‘বাংলা’ জয় বামেদের। বামেদের দেখানো পথেই হাঁটল বাংলার ভবিষ্যৎ।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ পশ্চিম বাংলার নাম পরিবর্তন নিয়ে বহু বার বিতর্কের পর এবার পরিবর্তন হতে চলেছে বাংলার নাম। পশ্চিম বাংলার নাম পাল্টে করা হল ‘বাংলা’। আজ বিধানসভায় এই প্রস্তাব দেন মুখ্যমন্ত্রী আর এই প্রস্তাব মেনে নেন বাম, কংগ্রেস, বিজেপি। বাংলা হিন্দি এবং ইংরেজি তিনটি ভাষায় জন্য একটি নামই থাকছে ‘বাংলা’। যা এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা।

তবে বাংলার ৩ টি ভাষায় তিনটি নামের বিরোধিতা করেন সুজন বাবু। তিনি জানান, যে ‘বাংলা’ একটা নামই রাখা ভালো। যুক্তির স্বপক্ষে তিনি জানান শোভন চ্যাটার্জির নাম যেমন Goodlooking চ্যাটার্জি হয়না, তেমনই বাংলার নাম বিভিন্ন ভাষায় বিভিন্ন হওয়া শোভনীয় নয়।

১৯৯৯ সালে তৎকালীন বামফ্রন্ট সরকার কেন্দ্রের কাছে প্রস্তাব করেছিল রাজ্যের নাম হোক বাংলা। বাংলা এবং ইংরেজি উভয় ভাষাতেই ‘বাংলা’ হোক। কেন্দ্রের কাছে প্রস্তাবের আগে, মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য, রাজ্যের নামকরণের প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা করেন রাজ্য বিধানসভায়। সরকার পক্ষের প্রস্তাব ছিল রাজ্যের নাম হোক ‘পশ্চিমবঙ্গ’। বাংলা , ইংরেজি এবং হিন্দি যে কোন ভাষাতেই। তৎকালীন বিরোধী দলের পক্ষ থেকে সংশোধনী দিয়ে, পরিবর্তন করে, ‘বাংলা’ নাম করনের কথা বলা হয়। সরকার, বিরোধীদের সাথে আলাপ-আলোচনা করে সর্বসম্মত মনোভাবের লক্ষ্যে বিরোধী দলের প্রস্তাব গ্রহণ করে এবং সরকার পক্ষই সংশোধনী আনে যে নামটা ‘পশ্চিমবঙ্গের’ বদলে ‘বাংলা’ হোক।

মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে, রাজ্যের নামকরণের আলোচিত প্রস্তাব দিল্লিতে পাঠানোও হয়েছিল। সেই সময় তা গৃহীত হয়নি। তখন বাংলা-ইংরেজি উভয় ভাষাতেই নাম ছিল ‘পশ্চিমবঙ্গ’। তবে এত দিন পরে জয় হল ‘বাংলার’। সুজন বাবু সাংবাদিক দের জানান, ১৯৯৯ সালে আমাদের কথা শোনেন নি বিজেপি এবং NDA জোটে থাকা তৃণমূল, আর আজ আমাদের প্রস্তাবই মানতে হল তৃণমূল এবং বিজেপিকে।  ১৯৯৯ সালের বামেদের দেখানো পথেই পাল্টালো বাংলার ভবিষ্যৎ। এবার থেকে পশ্চিম বাংলার পরিবর্তে ‘বাংলা’ নামেই ডাকা হবে আমাদের মাতৃভূমি কে।

আরও পড়ুনঃ বিমান বনাম পার্থ। মতপার্থক্যর জেরে স্পিকার পদ থেকে ইস্তফা চান বিমান।

FOLLOW US ON:
Rate This Article:
NO COMMENTS

Sorry, the comment form is closed at this time.