Homeরাজ্যমমতার “সততায়” কালি লাগবার ভয়। বিধানসভায় লোকায়ুক্ত নিয়ে এক হল বাম বিজেপি কংগ্রেস।

মমতার “সততায়” কালি লাগবার ভয়। বিধানসভায় লোকায়ুক্ত নিয়ে এক হল বাম বিজেপি কংগ্রেস।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ লোকায়ুক্ত জট কাটছে না কোনোমতেই। ৬ দিন আগেই লোকায়ুক্ত বিলের সংশোধনী খসড়া বিলি হয়েছিল বিধানসভার পরিষদীয় সমস্ত ঘরে। তা নিয়ে জটিলতার সৃষ্টি হয়। বিরোধীদের সমালোচনার মুখে পড়ে বিল গুলি ফেরত নিয়ে নেওয়া হয়। এরপর ১৮০ ডিগ্রী ঘুরে সরকার পক্ষ থেকে দাবী করা হয় এমন কোনো বিল নাকী দেওয়াই হয়নি।

এই নিয়ে জটিলতা কাটার বদলে তা আবার বৃদ্ধি পেল মঙ্গলবার। মঙ্গলবার বিধানসভায় অধিবেশন চলাকালীনই সংশোধনী বিলের প্রতিলিপি বিলি করা হয়। জানানো হয় ২৬শে জুলাই বিধানসভায় বিল পেশ করা হবে। সেদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও উপস্থিত থাকবেন। এরপরই শুরু হয় সমস্যা। সুত্র অনুসারে জানা গেছে বর্তমানে সংশোধনী আনার ফলে লোকায়ুক্ত থেকে মুখ্যমন্ত্রীকে সম্পূর্ণ ভাবে ছাড় দেওয়া হচ্ছে। বলা হয়েছে সরকারী কাছে কোনো দুর্নীতির অভিযোগে মুখ্যমন্ত্রীকে কোনো ভাবেই দায়ী করা যাবেনা। এমনকী মন্ত্রীসভার কোনো সদস্য বা সরকারী কর্মচারী দের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগের তদন্ত লোকায়ুক্ত করতে পারবে কীনা, তা নিয়ে ও রাজ্যসরকারই চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে।
প্রসঙ্গত ২০০৪ সালে রাজ্যে প্রথম লোকায়ুক্ত বিল পাশ হয়েছিল। বাম সরকারের আমলে আনা এই বিলে লোকায়ুক্তের আওতায়ই ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

বর্তমানে বিলি হওয়া এই বিল নিয়ে সমালোচনায় সরব হয়েছে বিরোধী দলগুলি। তাদের বক্তব্য পোস্টারে, হোর্ডিঙ এ সর্বত্রই তো মুখ্যমন্ত্রী নিজেকে সততার প্রতীক হিসেবে দাবী করেন। সত্যিই যদি তিনি কোনোরকম অসৎ কাজের সাথে যুক্ত না হন তাহলে তদন্তে ভয় কী। সরকারী কর্মচারী ও মন্ত্রীসভার সদস্যদের অবাধ দুর্নীতিতে এই বিল মদত দেবে বলেই বিরোধীরা মনে করছেন। এই বিলকে কার্যত ‘কালা কানুন’ বলেই অভিহিত করেছেন বিরোধীরা।

পড়ুনঃ রোজভ্যালি নিয়ে হঠাৎ তৎপর ইডি। তবে কি আবার চাপের মুখে পরতে চলেছে তৃণমূল?

FOLLOW US ON:
Rate This Article:
NO COMMENTS

Sorry, the comment form is closed at this time.