Homeদেশঅন্ধকারে ‘আধার’, দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও সুরক্ষিত নন? বাড়ছে জল্পনা।

অন্ধকারে ‘আধার’, দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও সুরক্ষিত নন? বাড়ছে জল্পনা।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ বিরোধীরা বরাবরই আধারের উপযুক্ত গোপনীয়তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে আসছিলেন। আধারের মাধ্যমে যে অনেক ব্যক্তিগত তথ্য বেহাত হয়ে যেতে পারে ,তাও জানিয়েছিলেন তাঁরা। কিন্তু তাতে কর্ণপাত করেনি সরকারপক্ষ। তাদের মতে আধার হল সম্পূর্ণ ভাবেই নিরাপদ।

আর এই দম্ভেই ট্রাই এর সভাপতি আর এস শর্মা নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডেলে ফাঁস করে দেন তাঁর ১২ সংখ্যার আধার নম্বর। সাথে বলেন যে এবার কেউ তার ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস করে দেখাক। বস্তুত যারা একে অসুরক্ষিত বলেছিল তাদের দিকেই ওপেন চ্যালেঞ্জ ছোঁড়েন তিনি। তাঁর এই ট্যুইটটি প্রায় ৩০০০ বারের কাছাকাছি রিট্যুইটও হয়। এরপরই শুরু হয় আসল ঘটনা।

নিজেকে ফরাসী নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ হিসাবে দাবী করা হ্যাকার ইলিয়ট অ্যান্ডারসন, ট্রাই সভাপতির প্যান নম্বর, জন্মদিন, ফোন নম্বর ও বিকল্প ফোন নম্বরই শুধু নয় তাঁর হোয়্যাটস অ্যাপের বর্তমান ছবিটিও প্রকাশ্যে ট্যুইট করেন। এমনকী তাঁর জিমেইল পাসওয়ার্ড ও তিনি জানেন বলে দাবী করে আর এস শর্মা কে তা পাল্টে ফেলতে বলেন।

এখানেই যদিও থামেননি ইলিয়ট অ্যান্ডারসন। এবার তিনি চেয়ে বসেছেন দেশের সবচেয়ে প্রভাবশালী নাগরিক, দেশের প্রধাণমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আধার নম্বর। নরেন্দ্র মোদীকে ট্যুইট করেই তা চেয়েছেন ওই ফরাসী হ্যাকার। ট্যুইট টিতে বলা হয়েছে এবার যেন নরেন্দ্র মোদীও তাঁর আধার নম্বরটি প্রকাশ্যে আনেন, যদি অবশ্য তাঁর আধার থাকে।

স্বাভাবিক ভাবেই এ ঘটনা ঘিরে হাসিঠাট্টার রোল উঠেছে ট্যুইটার সহ সব সোশ্যাল মিডিয়াতেই। কিন্তু এর পিছনে থাকা ঘটনাটিই আমাদের দেখিয়ে দিচ্ছে আমরা আদপেই নিরাপদে নেই। খোদ ট্রাই সভাপতির ব্যক্তিগত তথ্য যেখানে কয়েক মিনিটে চলে যাচ্ছে বিদেশী হ্যাকার দের হাতে, সেখানে আমজনতার ব্যক্তিগত তথ্য তার মানে ঠিক কতটা অসুরক্ষিত তা স্পষ্ট এই ঘটনায়। তবে কী বিরোধীদের দাবী মতে আধারের নিরাপত্তা ব্যবস্থা এতটাই ভঙ্গুর? জবাব মেলেনি কেন্দ্রীয় সরকার বা ট্রাই এর তরফ থেকে।

FOLLOW US ON:
Rate This Article:
NO COMMENTS

Sorry, the comment form is closed at this time.