Homeবিদেশবেআইনি কাজে ব্যবহার করা হছে ইদুর,হতবম্ভ পুলিশ কর্মীরা।

বেআইনি কাজে ব্যবহার করা হছে ইদুর,হতবম্ভ পুলিশ কর্মীরা।

 

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ মরা ইঁদুরের দেহ কে দিয়ে কার্য সাধন করা হচ্ছে এমনটাই জানিয়েছেন বিবিসি প্রতিবেদন।মরা ইঁদুরের পেটে করে কেবল গাজা নয় এখন মোবাইল পাচার করা হচ্ছে এমন টাই জানা গেছে। মাদকদ্রব্য পাচার এর পাশাপাশি এখন মোবাইল ও পাচার করা হচ্ছে এমনটাই শোনা যাচ্ছে। জানা গেছে মরা ইঁদুরের দেহে তামাক ও অন্যান্য মাদকদ্রব্য এছাড়া মোবাইল ঢুকিয়ে সেলাই করে দেশটির ডোরসেটের শ্যাফটসবারির এইচএমপি গায়েস মার্স নামে একটি পুরুষদের কারাগারে পাঠানো হতো।কিন্তু এখন তা পুলিশের হাতে ধরা পড়েছে।মার্চ মাসের শুরুর দিকে মাটির তলা থেকে তিনটি ইঁদুরের দেহে এগুলো উদ্ধার হয়েছে।এই বিষয়ে ডোর সেটের পুলিশ রা তদন্ত করছে কিন্তু এখনো পর্যন্ত জানা যায়নি এই পাচার কার্যের সাথে এখন অব্দি কারা কারা যুক্ত রয়েছে। কারাগার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন এই ঘটনা তাদের কাছে খুবই বিস্ময় জনক কারণ এর আগে তারা এই রকমের ঘটনা দেখেনি।

যে ইঁদুর গুলি উদ্ধার হয়েছে সেই ইঁদুর গুলির পেট থেকে অনেক কিছুই পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন কারাগার কর্তৃপক্ষ। তারা জানিয়েছেন সেই ইঁদুর গুলির পেটে মাদকদ্রব্য গাজা সহ পাঁচটি মোবাইল ফোন চার্জার এবং তিনটি সিম কার্ড পাওয়া গেছে। তাদের ধারণা এগুলি কারাবন্দীদের কাছে বিক্রি করার জন্য পাঠানো হতো। দেশের কারাগার বিষয়ক মন্ত্রী রবি স্ট্রিওয়ার্ট বলেছেন আমাদের জানা ছিল না অপরাধীরা কিভাবে কারাবন্দীদের কাছে মাদকদ্রব্য পৌঁছে দিচ্ছেন।

এর আগেও অপরাধীরা নানা পদ্ধতিতে কারাগারে মাদকদ্রব্য পাচার করত যে গুলি হল ড্রোন, কবুতর, টেনিস বল। কারাগার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন তারা এই পাচার আটকাতে কারাগারের জানলা গুলো সরিয়ে ফেলবেন।এর আগের এই কারাগারে 2018 সালে জানা গেছে মাদক দ্ৰব গ্রহণ করার ফলে বেশ করেক জন মারা গিয়েছিল।আর এই ঘটনা রুখতে কারাগার কর্তৃপক্ষ আর ও অতিরিক্ত 12 জন কর্মকর্তাকে নিয়োগ করেছেন। যাতে এই ঘটনা আগের থেকে ভালো থেকে পরিস্থিতিতে আসে সেই খেয়াল ই রাখা হচ্ছে।।

FOLLOW US ON:
Rate This Article:
NO COMMENTS

Sorry, the comment form is closed at this time.