Homeরাজ্যরাত পোহালেই শুরু হবে বাংলায় লোকসভার প্রথম দফার নির্বাচন।

রাত পোহালেই শুরু হবে বাংলায় লোকসভার প্রথম দফার নির্বাচন।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ রাত পোহালেই ২০১৯ লোকসভা নির্বাচন।অনেকে বলেন ভোট মানেই উৎসব।ভারতে কাল বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে লোকসভা নির্বাচনের প্রথম দফার ভোট। দেড় মাসব্যাপী আয়োজিত এবারের নির্বাচনে সাত দফায় ভোট নেওয়া হবে।শেষ হবে ১৯ মে।কাল প্রথম দফার নির্বাচনে ২০টি রাজ্যের ৯১টি আসনে ভোট হবে। পশ্চিমবঙ্গে হবে আলিপুরদুয়ার ও কোচবিহার আসন।পশ্চিমবঙ্গের এই দুটি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১৮ জন প্রার্থী।এর মধ্যে রয়েছে বিজেপি, তৃণমূল, কংগ্রেস, বাম দল ফরোয়ার্ড ব্লক, আরএসপি। এই প্রার্থী দের মধ্যেও অনেকের বিরুধ্যে মামলা আছে।ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত ছয়জন প্রার্থী।ওই ছয়জনের বিরুদ্ধে খুন, খুনের চেষ্টা, অপহরণ, ধর্ষণসহ বিভিন্ন ফৌজদারি অপরাধের মামলা রয়েছে। কোচবিহারের তৃণমূল প্রার্থী হলেন কোটিপতি।

আলিপুরদুয়ার আসনটি হলো ভুটান ও আসাম লাগোয়া। আর কোচবিহার আসনটি বাংলাদেশের সীমান্ত ছুঁয়ে গেছে। আলিপুরদুয়ার আসনে উল্লেখযোগ্য প্রার্থীর মধ্যে রয়েছেন তৃণমূলের দশরথ তিরকে,বিজেপির জন বারলা,আরএসপির মিলি ওরাঁও এবং কংগ্রেসের মোহন লাল বসুমাতা প্রমুখ।আর অন্যদিকে কোচবিহার আসনের উল্লেখযোগ্য প্রার্থী হলেন, তৃণমূলের পরেশ চন্দ্র অধিকারী, বিজেপির নিশীথ প্রামাণিক,ফরোয়ার্ড ব্লকের গোবিন্দ রায়, কংগ্রেসের পিয়া রায় চৌধুরী প্রমুখ।বিপুলসংখ্যক চা-শ্রমিকও বাস করেন।এই দুটি আসনে অষ্টম পাস প্রার্থী যেমন আছেন তেমনই ডক্টরেট পাস প্রার্থীও আছেন।

সূত্রে খবর,পশ্চিমবঙ্গের দুটি আসনের নির্বাচন অবাধ ও শান্তিপূর্ণ করতে মোতায়েন করা হচ্ছে ৮৩ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী। এই দুটি আসনে ভোট নেওয়া হবে ৩ হাজার ৮৪৪টি বুথে। এর মধ্যে ৫০ থেকে ৬০ শতাংশ বুথকে স্পর্শকাতর হিসেবে চিহ্নিত করেছে নির্বাচন কমিশন।গতকাল নির্বাচন কমিশন কোচবিহারের জেলা পুলিশ সুপার অভিষেক গুপ্তাকে সরিয়ে দিয়েছে।সেখানে আনা হয়েছে অমিত সিংকে।এই দুটি আসনের নির্বাচন পর্যবেক্ষণের জন্য আনা হয়েছে কেন্দ্রীয় পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবেকে। এর আগে নির্বাচন কমিশন কলকাতা ও বিধাননগরের পুলিশ কমিশনার এবং বীরভূম ও ডায়মন্ড হারবারের পুলিশ সুপারকেও সরিয়ে দেয়।প্রথম দফার নির্বাচনে ভারতজুড়ে ৯১টি আসনে লড়ছেন ১ হাজার ২৭৯ জন প্রার্থী।তাঁদের মধ্যে ২১৩ জনের বিরুদ্ধে খুন, অপহরণ, নারী নির্যাতনসহ ফৌজদারি অপরাধের নানা মামলা রয়েছে।৯১টি আসনের ৩৭টি কেন্দ্রে রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে।

কোচবিহারে নাকা তল্লাসি হচ্চে। পুলিশ সূত্রে খবর,সব জায়গায় তল্লাসি চলছে।কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি সামাল দিতে তৈরি পুলিশ সূত্রে এমনটাই জানা গেছে।এর আগের নির্বাচন গুলিতে সন্ত্রাস হয়েছে এবং প্রাণ হারিয়েছে অনেকে।এখন এটাই দেখার কাল নির্বাচন কমিশন লোকসভা ভোট অবাধ ও শান্তিপূর্ণ করতে পারে কি না?

FOLLOW US ON:
Rate This Article:
NO COMMENTS

LEAVE A COMMENT