Homeদেশমোদী সরকারের অস্বস্তি আরও কয়েক গুণ বাড়িয়ে দিয়ে সামনে এল নতুন সমীক্ষা।

মোদী সরকারের অস্বস্তি আরও কয়েক গুণ বাড়িয়ে দিয়ে সামনে এল নতুন সমীক্ষা।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ ক্ষমতায় আসার আগে মোদি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন বছরে দু কোটি বেকারের চাকরি দেবেন তিনি। কিন্তু এক প্রকার চাকরি দিতে ব্যার্থ মোদি সরকার। সরকারি সমীক্ষার রিপোর্ট ফাঁস হয়ে এক তথ্য সামনে চলে আসায় বেজায় অস্বস্তিতে পড়েছিল মোদী সরকার। বিরোধীদের বেকারত্বের তির সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছিল শাসক দলকে। এ বার ভোটের মধ্যেই চাকরি খোয়ানো নিয়ে এমন এক সমীক্ষার ফল সামনে এল, যা মোদী সরকারের অস্বস্তি আরও কয়েক গুণ বাড়িয়ে দেওয়ার পক্ষে যথেষ্ট। নতুন সমীক্ষায় এও বলা হয়েছে নোটবন্দির পর থেকে গত দু’বছরে প্রায় ৫০ লক্ষ পুরুষ চাকরি হারিয়েছেন। মহিলাদের ধরলে এই সংখ্যা আরও অনেকটাই বেড়ে যাবে, দাবি করা হয়েছে সমীক্ষায়।

মঙ্গলবার বেঙ্গালুরুর আজিম প্রেমজি বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘দ্য সেন্টার ফর সাস্টেইনেবল এমপ্লয়মেন্ট’একটি সমীক্ষা রিপোর্ট প্রকাশ করেছে।‘স্টেট অব ওয়ার্কিং ইন্ডিয়া-২০১৯’ নামে ওই রিপোর্টে যদিও বলা হয়েছে,নোটবন্দি এবং চাকরি খোয়ানোর মধ্যে কোনও সংযোগ স্থাপন করা না গেলেও, এটা স্পষ্ট যে, চাকরি খোয়ানোর প্রবণতা বেড়েছে ২০১৬ সালের নভেম্বরের পর থেকে। সমীক্ষাটি করেছেন আজিম প্রেমজি বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন অধ্যাপক ।

চাকরি খোয়ানোর হারের পাশাপাশি কর্মসংস্থানের হারের তুল্যমূল্য আলোচনাও করা হয়েছে নতুন সমীক্ষায়। তাতে উঠে এসেছে, ২০১১ সাল থেকেই কর্মসংস্থানের হার কমতে থাকে। নতুন এই সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে,২০০০ সাল থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত অর্থাৎ নতুন শতাব্দীর প্রথম দশকে বেকারত্বের হার ছিল ২ শতাংশের উপরে সেটা হয়েছে ৫ শতাংশ। সমীক্ষক তিন অধ্যাপকের দাবি,নোটবন্দির পর পুরুষদের চেয়ে মহিলাদের উপরই চাকরিতে কোপ পড়েছে বেশি। তাঁদের বক্তব্য,‘‘সাধারণ ভাবে পুরুষদের চেয়ে মহিলারা বেশি ভুক্তভোগী। মহিলাদের মধ্যে বেকারত্বের সংখ্যা যেমন বেশি,তেমনই চাকরিতে অংশগ্রহণের হারও কম।২০১৯লোকসভা ভোটের আগে এই সমীক্ষা প্রকাশের পরএই অসস্তির মুখে পড়েছে বিজেপি।

FOLLOW US ON:
বার বার
Rate This Article:
NO COMMENTS

LEAVE A COMMENT