এবার সমলিঙ্গ বিবাহ হতে চলছে রাজপরিবারে।

১০দিক২৪ঃ ইংল্যান্ডের রাজপরিবার রক্ষণশীল বলেই পরিচিত সকলের কাছে। নতুন সম্পর্ক তৈরী, অর্থাৎ বিবাহের ক্ষেত্রে বেশ কিছু নিয়ম রয়েইছে রাজ পরিবারের। এতদিন যা মানতে বাধ্য ছিলের রাজ পরিবারের সকল সদস্যই।

চলতি বছরেই বর্তমান মহারাণী ২য় এলিজাবেথের নাতি হ্যারি ইতিহাস গড়েছেন মার্কিন অভিনেত্রী মেগান মর্কেল কে বিবাহ করে। মেগান শ্বেতাঙ্গ নন। ব্রিটিশ তো নন ই। এছাড়াও রাজ পরিবারের শতাব্দী প্রাচীন নিয়মের বাইরে গিয়ে যুবরাজ হ্যারি বিয়ের আংটিও পরেছেন। সবদিক থেকেই হ্যারি ও মেগানের বিয়ে ছিল নিয়ম ভাঙার বিয়ে। এবার আবার এক নতুন অধ্যায়ের সামনে দাঁড়িয়ে ব্রিটিশ রাজপরিবার। হতে চলেছে রাজপরিবারের প্রথম সমলিঙ্গ বিয়ে।

লর্ড আইভার মাউন্টব্যাটেন সম্পর্কের হিসেবে রাজপরিবারের জামাই। তাঁর স্ত্রী পেনি মাউন্টব্যাটেন রাজপরিবারের সদস্য। তাঁরা তিন সন্তানের বাবা মাও। আইভার মাউন্টব্যাটেন যে সমকামী তা প্রথম প্রকাশ্যে আসে ২০১৬ সালে। এ ব্যপারে পেনি কোনো আপত্তি জানাননি উল্টে স্বামীর সমলিঙ্গ বিবাহে পূর্ণ সমর্থন জানিয়েছেন তিনি। মাউন্টব্যাটেন বিয়ে করছেন জেমস কয়েল কে।

প্রসঙ্গত পাশ্চাত্যের বেশীর ভাগ দেশেই সমলিঙ্গ বিবাহ স্বীকৃত। প্রথম সমলিঙ্গ বিবাহকে স্বীকৃতি দেয় আর্জেন্টিনা। এরপর বর্তমানে বহু দেশেই তা স্বাভাবিক। ইংল্যান্ডেও ২০১৪ সালে সমলিঙ্গ বিবাহ বৈধ ঘোষনা করা হয়।

ছোটো ঘরোয়া অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিবাহটি হবে। মহারাণী বা সরাসরি সিংহাসনের দাবীদাররা কেউ এই বিবাহে উপস্থিত থাকবেন না বলেই জানা গেছে। তবে মাউন্টব্যাটেন জানিয়েছেন মহারাণী বা রাজপরিবারের পূর্ণ সম্মতিতেই হচ্ছে এই বিয়ে। যেহেতু মাউন্টব্যাটেন সরাসরি সিংহাসনের উত্তরাধিকার নন তাই রাজপরিবারের কারোর উপস্থিতি বাধ্যতামূলক নয়। তারা মাউন্টব্যাটেন ও কয়েল কে আগামী জীবনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বলেই দাবী মাউন্টব্যাটেনের।