টস দীর্ঘজীবী হোক

গত এক মাস ক্রিকেট মহলে প্রবল জল্পনার বিষয় ছিল টেস্টে টস থাকবে নাকি থাকবে না।আই সি সি আগেই বলেছিলো মেয়ে মাসের শেষের দিকেই স্পষ্ট হয়ে যাবে টস থাকছে কি না।মঙ্গল বার icc র সভাতেই স্পষ্ট হয়ে গেল টসের ভবিষ্যৎ।টেস্ট ক্রিকেটে যেমন স্বমহিমায় ছিলো টস তেমন ই থাকছে।ক্রিকেটের প্রায় জন্ম লগ্ন থেকেই প্রচলিত এই টস।একটি মুদ্রার দুই পিঠের মধ্যে দুই দলের অধিনায়ক একটি করে পিঠ অর্থাৎ হেড ও টেল বলতো তারপর মুদ্রাটিকে আকাশে ছুঁড়ে দিয়ে দেখা হয় কোন অধিনায়ক সঠিক বলেছেন।সেই মতন তারা ব্যাট এবং বল করার সিধ্যান্ত নিয়ে থাকে।এটি ক্রিকেটের ঐতিহ্য।

আজকের টি টোয়েন্টির যুগে ঐতিহ্য গুলি আস্তে আস্তে মৃতপ্রায় হয়ে পড়ছে।এরকম সময় টস তুলে না দেওয়াকে সাধুবাদ জানাচ্ছে ক্রিকেট মহল।মঙ্গলবারের সভায় আরো আলোচনা হয় খেলোয়াড় দের মধ্যে সহনশীলতা এবং পরস্পরের প্রতি সৌজন্য মূলক ব্যাবহার ক্রমশ তলানিতে ঠেকছে।তাই আই সি সি সিধ্যান্ত নেয় প্রত্যেক দেশের কোচ এবং অধিনায়ক কে এই বিষয় নজর দিতে হবে।তাতে যদি কাজ না হয় তবে আই সি সি এই বিষয় নতুন কোনো নিয়ম আনতে চলেছেন।সব মিলিয়ে দিনের শেষে এটুকু বলাই যায় ক্রিকেটের ঐতিহ্য দীর্ঘজীবী হোক।