সুপ্রিম কোর্টে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইলেন রাজীব কুমার।

১০দিক২৪, সায়ক করঃ  কলকাতায় রাজীব কুমারের বাসভবনে সারদা মামলা সংক্রান্ত জিজ্ঞাসাবাদের প্রসঙ্গে বাধাপ্রাপ্ত হয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় সিবিআই।
এহ্মেত্রে দায়ের করা আদালত অবনামনার আবেদনের প্রত্যুত্তরে এফিডেভিট জমা করেন রাজ্যের মুখ্য সচিব মলয় দে, ডিজিপি বীরেন্দ্র কুমার এবং কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার। এফিডেভিটের মাধ্যমে শীর্ষ আদালতের সম্ভাব্য অবমাননার জন্য নিঃশর্ত ক্ষমা চাইলেন তাঁরা।

তবে এহ্মেত্রে পুলিশ কমিশনার আর ও নানা তথ্য নিয়ে আসেন আদালতের সামনে
পুলিশ কমিশনার আদালতকে এও জানান যে ৩ ফেব্রুয়ারি কোনোরকম বৈধ কাগজপত্র ছাড়াই জোর করে তাঁর সরকারি বাসভবনে ঢোকার চেষ্টা করে সিবিআই। তাঁর এই বক্তব্যকে সমর্থন করেন ডিজিপি। প্রসঙ্গে রঞ্জন গগৈ এর নেতৃত্বে তৈরি বেঞ্চ ই সিদ্ধান্ত নেবেন এ ব্যপারে,এফিডেভিট খতিয়ে দেখার পর জানিয়ে দেওয়া হবে, আবেদনকারীদের ২০ ফেব্রুয়ারি বেঞ্চের সামনে সশরীরে হাজির হতে হবে কি না??.আজ, অর্থাৎ ১৯ ফেব্রুয়ারি, শীর্ষ আদালতের সেক্রেটারি জেনারেল এই মর্মে আদালতের সিদ্ধান্ত তাঁদের জানিয়ে দেবেন বলে জানায় ওই বেঞ্চ।




সিবি আই এর যুগ্ম ডিরেক্টর শ্রীবাস্তব বাবু জানিয়েছেন
“অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ প্রমাণ নষ্ট করা হয়, অথবা আমাদের কাছ থেকে গোপন করা হয়। আমরা তদন্ত আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। চিট ফান্ড কেলেঙ্কারির নেপথ্যে বৃহত্তর ষড়যন্ত্র প্রকাশ্যে আনতে চাই"..

সত্যি যদি চিটফান্ডের ব্যপারে সমস্ত তথ্য সামনে আসে তবে মানুষ ই উপকৃত হবে তা বলাই বাহুল্য, এখন দেখার কমিশনার,ডিজিপি দের হ্মমায়, হার-জিতের খেলায় মানুষ কত টা উপকৃত হয়???