ছাত্রীকে পড়ার ব্যাচ থেকে জোর করে তুলে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণ

এবার মর্মান্তিক আরেকটি ধর্ষণের ঘটনার সাক্ষী থাকলো দক্ষিণ ২৪ পরগনা। তৃতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে পড়ার ব্যাচ থেকে জোর করে তুলে নিয়ে গিয়ে দলবদ্ধভাবে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল স্থানীয় যুবক ও তার কিছু সঙ্গিদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুরে। অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিস। দক্ষিন ২৪ পরগনার ছোট গগন গোয়ালিয়াই শেখ পাড়ার বাসিন্দা ওই ছাত্রী। শুক্রবার বিকালে বাড়ির কাছেই টিউশন পড়তে যায় সে। পড়ার মাঝে শৌচালয়ে যাওয়ার জন্য বাড়ির বাইরে বের হয় ওই ছাত্রী। তখন তাকে ডাকে অভিযুক্ত যুবক হাসিবুল। ছাত্রী তার কথাতে কান না দেওয়ায়, হাসিবুল তাকে মুখ চেপে ধরে তুলে নিয়ে যায় কাছেই একটি বাগানে। অভিযোগ, হাসিবুল ও তার সঙ্গীরা সেখানেই তাকে ধর্ষণ করে। তারপর বাগানের মধ্যেই নির্যাতিতা ছাত্রীকে ফেলে রেখে চম্পট দেয় হাসিবুল। এদিকে অনেক রাত হয়ে যাওয়ার পরেও ওই ছাত্রী বাড়ি না ফেরায় এলাকার মানুষ ছাত্রীটিকে খুঁজতে শুরু করে। রাতে ওই ছাত্রীর কাকা বাগানের দিকে ভ্যান রাখতে যান। তখনই বাগান থেকে কান্নার আওয়াজ শুনতে পান তিনি। সঙ্গে সঙ্গে বাগানে তল্লাসী শুরু করে গুরুতর জখম অবস্থায় উদ্ধার করা হয় ওই ছাত্রীকে। এরপর পুরো ঘটনাটি বাড়িতে জানানোর  পর বিষ্ণুপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করে নির্যাতিতা ছাত্রীর পরিবার। পুলিশ রাতেই গ্রেপ্তার করে অভিযুক্ত হাসিবুলকে।