এবারেও কি কলেজে ভর্তি নিয়ে দুর্নীতির শিকার হবে পড়ুয়ারা

আজ শুক্রবার উচ্চ মাধ্যমিকের ফল প্রকাশ হয়েছে।এরপর সেই মার্কশিট হাতে ছাত্র ছাত্রীরা কলেজ মুখি হবে।রেজাল্ট অনুযায়ী পড়ুয়ারা ইচ্ছে মতন কলেজে ভর্তি হবে এটাই কাম্য এবং স্বাভাবিক।কিন্তু গত কয়েক বছরের তিক্ত অভিজ্ঞতা তারা করে বেড়াচ্ছে ছাত্র ছাত্রীদের এবং অভিভাবক দের।গত বছর আমরা দেখেছি পনেরো,কুড়ি,ত্রিশ এমন কি পঞ্চাশ হাজার টাকাও ইউনিয়ন গুলির পক্ষ থেকে চাওয়া হয়েছে কলেজে ভর্তি কে কেন্দ্র করে।
তাই এবার কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে আগে থেকে সতর্ক হচ্ছে এই বিষয় নিয়ে।তারা জানিয়েছেন একটি হেল্পলাইন নম্বর করা হবে যে নম্বরে ফোন করে ছাত্র ছাত্রীরা সরাসরি বিশ্ববিদ্যালয়ে কতৃপক্ষ কে তাদের অভিযোগ জানাতে পারবেন।তাঁরা আরো বলেন কলেজ পরিদর্শক টিম থেকে একটি বিশেষ টিম তৈরি করা হচ্ছে যারা প্রত্যেক টি কলেজে ঘুরে ঘুরে নজর রাখবেন কোথাও কোনো পড়ুয়া দুর্নীতির শিকার হচ্ছে কিনা।এছাড়াও এবার প্রিন্ট মিডিয়া এবং ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়াকে বলা হয়েছে যে তাদের কাছে যদি কোনো এরকম ধরণের খবর এসে পৌঁছায় তারা যেন বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ কে বিষয় টি জানায়।

 


আগামী ২০তারিখের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় এর পক্ষে মেধাতালিকা প্রকাশ করতে বলা হয়েছে এবং ২২ তারিখ থেকে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু করা হবে বলে জানিয়েছেন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়।
সব মিলিয়ে এবারে বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ ভর্তি প্রক্রিয়া সুষ্ঠ ভাবে যাতে মেধার ভিত্তিতে হয় তার জন্য সচেষ্ট বলেই মনে করা হচ্ছে।
তবে কলেজের অভ্যন্তরে বহিরাগত দের দৌরাত্ম্য বন্ধ না করলে কি আদৌ কিছু করা সম্ভব?সেক্ষেত্রে ছাত্র ছাত্রীরা কি পুরোপুরি নিশ্চিন্ত হতে পারবে?প্রশ্ন রইল