বিজেপির #SamparkforSamarthan, নাকি 'রাজনৈতিক হ্যাংলামো', কি ভাবছে জনগণ?

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ সম্প্রতি রাজ্যের মধ্যে প্রধান তিনটি রাজনৈতিক দলের তালিকায় কংগ্রেস কে সরিয়ে জায়গা করেছে বিজেপি। বামেদের মত সব বুথে কর্মী না থাকলেও, তৃণমূল এর সঙ্গে জোর লড়াই দিচ্ছে বিজেপি। কেন্দ্রের বিজেপির বলে বলিয়ান হয়ে রাজনীতির মাঠে ভালো রকম জেঁকে বসেছে দিলিপ ঘোষের টিম।

কিন্তু রাজনৈতিক লড়াইের পাশাপাশি, এবার সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ দের পাশে টানার চেষ্টা তে নেমেছে বিজেপি। হটাত সকাল সকাল বিভিন্ন বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, এমন কি হিসেব কসে যাদের পাশে টানা যেতে পারে এমন সব দোদুল্যমান রাজনীতিবিদ দের দোরগোড়ায় পৌঁছে যাচ্ছেন রাজ্য বিজেপির হেভি ওয়েট নেতারা। আর তার ছবি চলে যাচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। আর ট্যাগ লাইন দেওয়া হচ্ছে #SamparkforSamarthan, অর্থাৎ 'সমর্থনের জন্য সম্পর্ক'।

 

 


ইতি মধ্যেই অনেকের সঙ্গে দেখা করেছেন বিজেপির নেতারা যেমন, প্রাক্তন রাজ্য কংগ্রেস সভাপতি ও সাংসদ শ্রী সোমেন মিত্রর সাথে 'জনসম্পর্ক' করেছেন রাজ্য সাধারণ সম্পাদক সুব্রত চট্টপাধ্যায়। বিশিষ্ট প্রাক্তন ফুটবলার শ্রী বদরু (সমর) ব্যানার্জীর সাথে জনসম্পর্ক করেন মুকুল রায়। খড়্গপুর বিধানসভার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের সাথে সম্পর্ক করেন খড়্গপুর বিধায়ক তথা রাজ্য সভাপতি শ্রী দিলীপ ঘোষ। প্রখ্যাত গায়ক অমর পালের সাথে জনসম্পর্ক করেন কেন্দ্রীয় সম্পাদক শ্রী রাহুল সিনহা। পদ্মভূষণ, দাদাসাহেব ফালকে, আরো বহু পুরস্কারে সম্মানিত কিংবদন্তি অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের সাথে জনসম্পর্ক করেন কেন্দ্রীয় সম্পাদক শ্রী রাহুল সিনহা। এছাড়া সল্টলেকে অবসরপ্রাপ্ত এয়ার চিফ মার্শাল অরূপ রাহা এবং বিশিষ্ট সাহিত্যকার মাননীয় শ্রী কৃষ্ণবিহারি মিশ্রজীর সাথে জনসম্পর্ক করেন রাহুল সিনহা।

 

 

পড়ুনঃ বিজেপির প্রস্তাবে, কি বললেন 'ফেলু মিত্তির'?


তবে অনেকের পক্ষ থেকে যেমন প্রকাশ্যে 'না' নিয়ে ফিরতে হয়েছে বিজেপি কে। তবে এভাবে বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিজেপি তে টানার প্রচেষ্টা কে অনেক রাজনীতিবিদ ই রাজনৈতিক হ্যাংলামো বলে কটাক্ষ করেছেন। তবে সেদিকে নজর না দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে #SamparkforSamarthan এর প্রচারেই আপাতত মন দিয়েছে বঙ্গ বিজেপি।