ভাঙরের আন্দোলন কারীদের সাথে আলোচনা চায় মমতা।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ রাজ্যে নোয়াপাড়া, ভাবাদীঘি কিংবা ভাঙর এই নাম গুলি এখন বেশ বিখ্যাত হয়ে উঠেছে। ঠিক যেমন আজ থেকে বছর দশেক আগে তখন বিখ্যাত ছিলো সিঙ্গুর,নন্দীগ্রাম,শালবনি ইত্যাদি।বাংলার মানুষের কাছে জমি বরাবরই একটু অন্য রকম আবেগের জায়গা তৈরি করে।আর সেই কারণেই বার বার বিখ্যাত নাম হিসেবে উঠে এসেছে সিঙ্গুর কিংবা ভাবাদীঘি অথবা নন্দীগ্রাম কিংবা ভাঙর।

আর আমাদের মুখ্যমন্ত্রী মাননীয় মমতা ব্যানার্জি নিজে জমি আন্দোলনের মাধ্যমে উঠে আসার ফলে তিনি এটা জানেন বাংলার মানুষের জমি আন্দোলন যে কোনো মুহূর্তে রাজ্যের পট পরিবর্তন করে দিতে পারে।

আর এই কারণেই এবার মুখ্যমন্ত্রী ভাঙরের আন্দোলন কারীদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চাইছেন।২০১৭ র জানুয়ারি মাস থেকে শুরু করে দেড় বছর কেটে গেলেও সরকার এখনো ভাঙরের সমস্যা মেটাতে ব্যার্থ।

এবার মমতা ব্যানার্জী ভাঙরের আন্দোলন কারীদের নিয়ে আলোচনার কথা বলেছেন।এবং তিনি আন্দোলন কারী দের নবান্নে আসার জন্য গাড়ির ও ব্যাবস্থা করেন।আন্দোলন কারীরা প্রথমে তাদের নেত্রী শর্মিষ্ঠা চৌধুরী কে ছাড়া আলোচনা করবেন না বলেন।কিন্তু পরে আন্দোলন কারী রা আলোচনায় বসতে রাজি হয়।তবে সোমবার মুখ্যমন্ত্রীর অন্য বিশেষ কাজ পরে যাওয়ায় আলোচনায় থাকতে পারেনি।কিন্তু তিনি আধিকারিক দের সঙ্গে আলোচনার সব ব্যবস্থা করে দিয়ে যায়।এবং এর পর তিনি নিজে গিয়ে কথা বলবেন বলে জানিয়েছেন।

আলোচনার মাধ্যমে মুখ্যমন্ত্রী কে এই মুহূর্তে সমস্যার সমাধান করা ছাড়া আর কোনো পথ নেই।কারণ আন্দোলন প্রতিদিন দৃঢ় হচ্ছে।রাজনৈতিক মহল মনে করছেন ভাঙর থেকেই তৃণমূল সরকারের পতন হতে পারে।