যাদবপুর, মেডিকেলের পর এবার মালদা। গনি খান চৌধুরী কলেজে ছাত্র অনশন পরল তৃতীয়দিনে।

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ মালদার গনি খান চৌধুরী ইনস্টিটিউট অফ ইঞ্জিনীরিং এন্ড টেকনোলজি কলেজের ২০১০ থেকে ২০১৫ এর ব্যাচের ছাত্রছাত্রীদের অভিযোগ তারা বৈধ শংসাপত্র দীর্ঘদিন ধরে পাচ্ছে না। ছাত্র রা জানায় তাদের কলেজে কোর্স প্যাটার্ন অনুযায়ী ২+২+২ সিস্টেমে তারা ভর্তি হয় এই প্যাটার্ন টি হলো ২ বছরের সার্টিফিকেট কোর্সের পর ২ বছর কোর্সটি হলো ডিপ্লোমা এবং আরো ২ বছর কন্টিনিউ করলে ছাত্র দের বি-টেক দেওয়া হবে। কিন্তু ছাত্রদের দাবি বহু আন্দোলন করেও ডিপ্লোমা পাওয়া গেলেও নির্দিষ্ট ভাবে সার্টিফিকেট কোর্সের শংসাপত্র দেওয়া হয়নি তাই ডিপ্লোমা টিও অবৈধ হিসেবে ধরা হচ্ছে সরকারি বেসরকারী সব কর্মস্থলে। অথচ এই কলেজ কেন্দ্রীয় সরকারের অনুমোদিত কলেজ ২০১৩ এবং ১৪ সালে প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতি সবার উপস্থিতিতে এই কলেজের বিল্ডিং উদ্বোধন হয়।

এর আগেও ছাত্ররা বৈধ শংসাপত্রের জন্য অনশন এ বসেছে কিন্তু তখন জেলাশাসক এর উপস্থিতিতে কলেজ কর্তৃপক্ষ দাবী মেনে নেওয়ার কথা বললেও এক মাস পনেরো দিন অতিক্রান্ত হওয়া সত্ত্বেও কোনো কাজ এখনো হয়নি।ঐ কলেজের মেন্টর দুর্গাপুর NIT এর সার্টিফিকেট প্রদান করবে বলেছিলো কিন্তু পরবর্তীতে কোনো সার্টিফিকেট দেওয়া হয় নি।

বৈধ শংসাপত্র অতি দ্রুত দেওয়ার জন্য ছাত্রছাত্রী রা আবার দীর্ঘ আন্দোলনে বসছে।ছাত্রদের কথায় মেডিকেল পারলে আমরা কেন পারবো না?তাদের দাবী তারা এই আন্দোলনের মাধ্যমেই তারা সার্টিফিকেট পেতে সফল হবে।