Homeরাজ্যসিঙ্গুরে বাম মিছিলে জনপ্লাবল। ড্যামেজ কন্ট্রোলের জন্য ৬ কোটির স্মারক স্তম্ভ বসাবে তৃণমূল?

সিঙ্গুরে বাম মিছিলে জনপ্লাবল। ড্যামেজ কন্ট্রোলের জন্য ৬ কোটির স্মারক স্তম্ভ বসাবে তৃণমূল?

১০দিক২৪ ব্যুরোঃ সিঙ্গুর কে সামনে রেখে লড়াই করেই  ক্ষমতায় এসেছিলো তৃণমূল। সেই সময় অভিযোগ ছিলো শিল্প গড়ার নামে গায়ের জোরে কৃষকদের কাছ থেকে না কি জমি দখল করেছে তৎকালীন বাম সরকার। এর পর এগারো সালে বাম সরকারের পরিবর্তে ক্ষমতায় আসে তৃণমূল কংগ্রেস। এর পরই ক্ষমতায় এসে , সরকারি চেক নিতে অনিচ্ছুক পরিবারকে প্রতি মাসে ২ হাজার টাকা এবং দু টাকা কেজি দরে ১৬ কেজি চাল দেয়া শুরু করে । কিন্তু তাও বন্ধ হয়ে যায়।

সিঙ্গুরের বুকে শিল্প চাই এই দাবি নিয়ে কিছু দিন আগেই পথে নামে বামেরা, প্রায় ৫০ হাজার কৃষক এই মিছিলে অংশ নেয়। জনপ্লাবনে ভেসে যায় রাজপথ। সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে এলাকার কৃষকরা বামেদের মিছিলে যোগ দেওয়াতে স্বাভাবিক ভাবেই চাপ বাড়তে থাকে তৃণমূলের ওপর। কারণ সিঙ্গুরের কৃষকরা শিল্প চাই এই দাবি কেই জোড়াল ভাবে তুলছেন, আর অন্যদিকে সিঙ্গুরে শিল্পের বিরোধিতা করেই ক্ষমতায় এসেছিল তৃণমূল। তাই সিঙ্গুরে আবার শিল্প আনতে গেলে, বামেরা যে সঠিক পদক্ষেপ নিয়েছিল সেটাই প্রমাণ হয়ে যাবে। তাই কৃষকের মন ভোলাতে বিজেপির দেখানো পথ কেই বেঁছে নিলো তৃণমূল।



জানা যাচ্ছে, সিঙ্গুর আন্দোলনের ইতিহাসকে এবার শুধু বই এর পাতায় নয় সিঙ্গুরের এলাকাতে ও ফুটিয়ে তুলতে চাইছে তৃণমূল সরকার। তৃণমূলের মতে সিঙ্গুর আন্দোলনের শহীদ দের স্মরণে, ৬ কোটি টাকা ব্যয় করে ৪০ ফুট লম্বা একটি স্মারক স্তম্ভ তৈরি করবে রাজ্য সরকার। দুর্গাপুর এক্সপ্রেসওয়ের ধারে সিংহেরভেরি মৌজাতে সরকারি জমিতে এই নির্মাণ হবে। কাজ শুরু হওয়ার ৩০০ দিনের মধ্যেই এই কাজ শেষ হবে। এই কাজের জন্য পূর্ত দপ্তরের হুগলি জেলার ওয়েস্ট এন্ড সার্কেল টু, সুপারিনটেন্ডিং ইঞ্জিনিয়ার ইটেন্ডার ডাকা হয়েছে। তাপসী মালিক অন্যান্য শহীদের স্মৃতিচারণ থাকবে এই স্মারক স্তম্ভে, যদিও তাপসী মালিকের খুনি কে সেই প্রশ্নে এখন ও নীরব রাজ্য সরকার।



তবে এই ঘটনার বিরোধিতা করেছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কিছু চাষি। তাদের মতে, খাবার দুমুঠো চাল আমারা পাচ্ছিনা, সরকার পাশে না দাঁড়িয়ে ৬ কোটি টাকা নষ্ট করছে। এই জমিতে শিল্প ছাড়া আর কিছু সম্ভব নয়। প্রসঙ্গত, বিজেপি ও গুজরাটে এবং উত্তরপ্রদেশে মানুষের চোখ ঘোরাতে মূর্তি তৈরির দিকে বেশি নজর দিচ্ছে, এক সময় বিজেপির জোট সঙ্গী থাকা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও বাম উত্থান কে ঠেকাতে ড্যামেজ কন্ট্রোলে নেমে এই পথেই হাঁটলেন বলে মনে করছে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।


FOLLOW US ON:
Rate This Article:
NO COMMENTS

Sorry, the comment form is closed at this time.